logo

Our Blog

কমার্শিয়াল ব্লাস্ট ফ্রিজার-দ্রুত তাপমাত্রা নিয়ন্ত্রনের যুগোপযোগী সমাধান।

কমার্শিয়াল  ব্লাস্ট ফ্রিজার-দ্রুত তাপমাত্রা নিয়ন্ত্রনের সমাধান

কোন খাবার বা পণ্যকে যদি খুব দ্রুত ফ্রজিং করার দরকার হয় তবের ব্লাস্ট ফ্রিজারে অল্প সময়ের মাঝেই কাঙ্ক্ষিত তাপমাত্রায় নিয়ে আসা যায় যার ফলে সেই পন্য বা খাবার থাকে অটুট। তো আজকে আমরা এই কমার্শিয়াল  ব্লাস্ট ফ্রিজার সম্পর্কে জানবো। চলুন শুরু করা যাকঃ

ম্যাক্সিমাম টেম্পারেচার
আপনি যদি সাধারণ রেফ্রিজারেটর যদি কোনো প্রোডাক্ট ফ্রিজিং বা স্টোর করতে চান তাহলে প্রডাক্টটি ঠান্ডা হতে অনেক বেশি সময় নিবে। আবার খুব বেশি যে ঠান্ডা হবে তাও না। তবে এই ব্লাস্ট ফ্রিজারে প্রোডাক্ট ঠান্ডা হতে সময় যেমন কম নিবে তেমনি সর্বোচ্চ তাপমাত্রায় ঠান্ডা হবে। সাধারণ রেফ্রিজারেটরের টেম্পারেচার ৩৫° থেকে ৪০° ডিগ্রী ফারেনহাইটের ভিতর থাকে। আর ব্লাস্ট ফ্রিজারের মিনিমাম টেম্পারেচার থাকে ০° ফারেনহাইট (- ১৮° সেলসিয়াস)। তবে আমাদের এই কমার্শিয়ালি ব্লাস্ট ফ্রিজার দিয়ে আপনি -৪৫ ডিগ্রী সেলসিয়াস টেম্পারেচারে যে কোনো প্রোডাক্ট ঠান্ডা করতে পারবেন। এই টেম্পারেচারে বায়ো-ক্যামিকেল কিংবা বায়ো-মেডিকেলের ক্ষুদ্র প্রোডাক্টগুলোর গুনগত মান ও সেফটি বজায় থাকে।

কন্ট্রোল সিস্টেম
কমার্শিয়াল ব্লাস্ট ফ্রিজারে রয়েছে হাই কোয়ালিটির কন্ট্রোল সিস্টেম। ব্লাস্ট চিলার মেশিনের মতো ব্লাস্ট ফ্রিজারে টাচের মাধ্যমে অপারেশন কন্ট্রোল করা যায়। আপনি চাইলে রিমোটের মাধ্যমেও সিস্টেম কন্ট্রোল করতে পারবেন। এনালাগ,ডিজাটাইল উভয় সিস্টেম ই থাকে। প্রতিটা সাইকেল শেষে শাট অফ করার অপশন আছে। এই কন্ট্রোল সিস্টেমের মাধ্যমে টেম্পারেচার কমানো বাড়ানো সহ অন্যান্য প্রোগ্রাম সুন্দর ভাবে নিয়ন্ত্রণ করা যায়। ধরুন, ফ্রিজারের ভিতরে কত তাপমাত্রায় আপনার প্রোডাক্ট ফ্রিজিং হচ্ছে তা বুঝার জন্য বডির বাহিরে অংশে তাপমাত্রার অবস্থান দেখা যায়। ব্লাস্ট ফিজারে সাধারণ দুই ধরনের সিস্টেম আছে, একটি হলো অটোমেটিক মানে, রিমোট কন্ট্রোল সিস্টেম। পাশাপাশি ম্যানুয়ালি নিয়ন্ত্রণ করার অপশনও আছে।

ব্রান্ডেড কমপ্রেসর
বাণিজ্যিক ভাবে ফলমূল, শাকসবজি, গোশত, সামুদ্রিক মাছ, বিভিন্ন ড্রাগ ইত্যাদি কম সময়ে অধিক পরিমাণে ফ্রিজিং করার জন্য ব্লাস্ট ফ্রিজার অন্যতম আবিষ্কার। এই ব্লাস্ট ফ্রিজারে উন্নতমানের কমপ্রেসর ব্যাবহার করা হয়েছে। যেকোনো ফ্রিজিং মেশিনের প্রাণ হলো কমপ্রেসর। কমপ্রেসর যদি ভালো কোয়ালিটির না হয় তাহলে তা থেকে আপনি কখনও ভালো সার্ভিস পাবেন না। ভালো ব্রান্ডের কমপ্রেসর হলে ত কার্য ক্ষমতা বাড়িয়ে দিবে, দ্রুত ফ্রিজিং করবে। এই কমপ্রেসর দ্বারা আপনি ৩০-৯০ মিনিটেই -৪০° তাপমাত্রায় ফ্রিজিং করতে পারবেন। এতে কোনো ফ্রিয়ন ব্যাবহার করা হয় না। কম্প্রেসরের পাওয়ার ২.৫ এইচ পি।

বডি ম্যাটারিয়াল
যেকোনো মেশিনের বডি ম্যাটারিয়ালের উপর নির্ভর করে মেশিনের দীর্ঘ স্থায়িত্বতা। মেশিনের ম্যাটারিয়াল শক্তিশালি হলে মেশিন থেকে ভালো সার্ভিস পাবেন। কমার্শিয়াল ব্লাস ফ্রিজারটির বাহিরের অংশ এবং ভেতরের পুরো অংশ পুরোটাই ফুড গ্রেডের AISI304 স্টেইনলেস ষ্টীলের ম্যাটারিয়াল দিয়ে তৈরি। স্টেইনলেস স্টিলের বডি হওয়াতে এটি খুবই মজবুত, পোলাইশড এবং সহজে পরিষ্কার করা যায়। শেলফ গুলো ফুড গ্রেডের স্টিলের হওয়ায় যেকোনো খাবারের জন্য এটা নিরাপদ। শতভাগ হাইজিনি মেইনটেইন করে।

স্মার্ট টেম্পারেচার এডাজাস্টমেন্ট

ধরুন, ব্লাস্ট ফ্রিজারে প্রোডাক্টটি স্বাভাবিক -১৮ ডিগ্রী সেলসিয়াস তাপমাত্রায় আছে। এখন আপনার প্রয়োজন আরো কমিয়ে -৪০ ডিগ্রীতে আনা। এই ফিচার দিয়ে আপনি সহজেই -১৮ ডিগ্রী থেকে -৪০° তে নিয়ে আসতে পারবেন। বিভিন্ন কারণে টেম্পারেচার এডজাস্ট করা লাগে। কিছু কিছু খাদ্য জাতীয় পদার্থ বা ওষুধে নির্দিষ্ট তাপমাত্রায়ও ব্যাক্টেরিয়া দূর হয় না। তখন আপনি চাইলে টেম্পারেচার আরো কমিয়ে দিতে পারেন। খুব সহজেই একজন অপারেটর ব্লাস্ট ফ্রিজার মেশিনের টেম্পারেচার এডজাস্ট করতে পারে।

পুল ডাউন টাইম

কমার্শিয়াল এই ব্লাস্ট ফ্রিজারের খুবই গুরুত্বপুর্ন একটি ফিচার হল পুল ডাউন টেম্পারেচার। ধরুন, কোনো একটি খাবার ৩০° সেলসিয়াসের স্বাভাবিক তাপমাত্রায় আছে। এখন এটি কে যদি -২০° সেলসিয়াসে আনা হয় তাহলে মিনিমাম ৫০ মিনিট সময় লাগবে। তাহলে এই ৫০ মিনিট কে পুল ডাউন টাইম বলে। মানে, একটি প্রোডাক্টের স্বাভাবিক তাপমাত্রা থেকে একটি নির্দিষ্ট তাপমাত্রায় আসতে যে সময় লাগে তাকেই পুল ডাউন টাইম বলে। আমাদের এই ব্লাস্ট ফ্রিজার দ্বারা খুব দ্রুতই যেকোনো প্রোডাক্ট বরফ হয়ে যায়।

এনার্জি সেভিংস ফ্যান
ফ্যানের বাতাস যত বেশি হবে তত তাড়াতাড়ি প্রোডাক্ট ঠান্ডা/ফ্রিজ হবে। ফ্যান দ্বারা প্রচন্ড বাতাস হয় ফলে ফ্রিজারের আইটেম নির্দিষ্ট তাপমাত্রায় ঠান্ডা হয়। একটি প্রোডাক্ট তাড়াতাড়ি ঠান্ডা হলে ফ্রিজারের কার্যক্ষমতা বেড়ে যায়। ফ্রিজারের যত বেশি ফ্যান থাকবে তত বেশি যেকোনো তাপমাত্রার প্রোডাক্টকে নির্দিষ্ট তাপমাত্রায় ফ্রিজিং করবে।

আইসোলেটেড দরজা
আপনি যখন কোনো মেশিন চালাবেন তখন যদি প্রচন্ড শব্দ হয় তাহলে নিশ্চয়ই আপনি খুব বিরক্ত হবেন। যে কেউ ই বিরক্ত হবে। তাই আমাদের এই ব্লাস্ট ফিজার মেশিন চালিয়ে যেনো আপনি বিরক্ত না হোন সে জন্য এতে উচ্চ প্রযুক্তির আইসোলেটেড দরজা লাগানো হয়েছে। মেশিনের অতিরিক্ত শব্দ ভেতরেই থাকবে, বাইরে আসবেনা। খুবই কম শব্দ হয়।

৩৬০° চাকা
কমার্শিয়াল ব্যাবহারের উদ্দ্যেশেই সাধারণত এই ব্লাস্ট ফ্রিজার মেশিন ব্যাবহার করা হয়।ধরেন এই মেশিনকে এক এক জায়গা থেকে আরেক জায়গায় নিয়ে যেতে হবে কিংবা এখন যে জায়গায় মেশিনটি অবস্থান করছে তা থেকে একটু নড়াতে হবে। যেহেতু মেশিনটি অনেক ভারী তাই একে নাড়াচাড়া করা বা এক স্থান থেকে আরেক স্থানে নেওয়া খুবই কঠিন। কিন্তু এই সমস্যা যেনো না হয় সেজন্য আমাদের এই ব্লাস্ট ফ্রিজারটিতে চারটি চাকা লাগানো রয়েছে। চাকা গুলো ৩৬০° কোণে নাড়ানো যায়। নিঃসন্দেহে এই ৩৬০ ডিগ্রি কোণের চাকাগুলো আপনার এবং আপনার কোম্পানির সময় বাঁচিয়ে দিবে। পাশাপাশি আপনার লেবার খরচও অনেক কমে যাবে।

এডজাস্টেবল শেল্ভস
একটি ব্লাস্ট ফ্রিজার বিভিন্ন কাজে ব্যাবহার করা যেতে পারে। যেমন, মেডিক্যাল সেক্টর কিংবা বায়ো-মেডিক্যালে এক প্রক্রিয়ায় মেডিসিন ঠান্ডা করা লাগতে পারে। ফুড ফ্যাক্টরিতে বিভিন্ন খাবার ঠান্ডা করে প্যাকেজাত করে সরবরাহ করা হয়।ফ্রিজারের ভেতরের যদি শেলফে প্রোডাক্ট রাখতে চান, তাহলে আপনি সেলফ ব্যাবহার করতে পারবেন, আবার যদি আপনি শেলফ ব্যাবহার করতে না চান তাহলেও খুব সহজেই শেলফ খুলে রাখতে পারেন। শেলফ গুলো খুবই মজবুত হয়ে থাকে। শেলফ স্টেইনলেস স্টিলের হওয়ায় সহজে ভাংগে না, মরীচা পড়ে না।

আকর্ষনীয় ডিজাইন
এই কমার্শিয়াল ব্লাস্ট ফ্রিজার সাধারণত ফুড ফ্যাক্টরিতে কিংবা বায়ো ক্যামিকেল কিংবা বায়ো মেডিসিন সেক্টরে ব্যাবহার করা হয়। আকর্ষনীয় ডিজাইনে ব্লাস্ট ফ্রিজার বানানো হয়েছে। বিভিন্ন ডিজাইনের ফ্রিজার আমাদের কাছে পাবেন। মেডিসিন সেক্টরে এক ধরনের মেশিন, ফুড ফ্যাক্টরিতে আরেক ধরনের মেশিন ব্যাবহার করা হয়। তাই একটি মেশিন দিয়ে যেন সকল সেক্টরের চাহিদা পূরন করা যায় তা এই কমার্শিয়াল ব্লাস্ট ফ্রিজার দিয়ে সম্ভব। এতে আপনি চাইলে শেলফ ব্যাবহার করতে পারেন, আবার নাও করতে পারেন। কারন এতে রয়েছে এডাজাস্টেবল শেলফ সিস্টেম। আপনি চাইলে খাবার রাখার জন্য বিভিন্ন ট্রে ব্যাবহার করতে পারেন। ট্রে গুলো সাধারণত স্টেইনলেস স্টিলের বানানো থাকে। স্টেইনলেস ষ্টীল ম্যাটারিয়াল খাবার বা অন্যান্য প্রোডাক্টের হাইজিনি মেইনটেইনের করে।


যে যে জায়গায় ব্যাবহার করা হয়
কোল্ড স্টোরেজ কোম্পানি গুলো ইন্ডাস্ট্রিয়াল ব্লাস্ট ফ্রিজার ব্যাবহার করে। বড় বড় ফুড ফ্যাক্টরি, ফার্মাসিউটিক্যাল কোম্পানি, বায়ো-মেডিক্যাল, বায়ো-ক্যামিকেল কোম্পানিগুলোতে কমার্শিয়াল ব্লাস্ট ফ্রিজার মেশিন ব্যাবহার করা হয়। ভ্যাকসিন উৎপাদন, সরবরাহ ও সংরক্ষণ করার জন্য ব্লাস্ট ফ্রিজারের প্রয়োজন হয়। তাছাড়া কমার্শিয়াল কিচেন, বড় বড় রেস্টুরেন্টে ব্লাস্ট ফ্রিজার ব্যাবহার করা হয়ে থাকে।

কমার্শিয়াল ব্লাস্ট ফ্রিজার সম্পর্কে কিছু প্রচলিত প্রশ্ন ও উত্তর সম্পর্কে জেনে নেয়া যাকঃ 


কমার্শিয়াল ব্লাস্ট ফ্রিজার কি?
কমার্শিয়াল ব্লাস্ট ফ্রিজার হলো এক প্রকার রেফ্রিজারেটর সিস্টেম, যেখানে কম সময়ে অধিক পরিমাণ ফুড কিংবা অন্যান্য প্রোডাক্ট খুবই ঠান্ডা করে সংরক্ষন করা হয়। বাণিজ্যিক ভাবে এই ফ্রিজার ব্যাবহার করা হয় বেশি। উন্নতমানের কমপ্রেসর ও ফ্যান ঘুর্ণনের মাধ্যমে প্রোডাক্টকে ঠান্ডা করে। সাধারণ রেফ্রিজারেটরে যেকোনো প্রোডাক্ট ঠান্ডা হতে অনেক সময় নেয়। কিন্তু কমার্শিয়াল ব্লাস্ট ফ্রিজারে ঠান্ডা হতে খুবই কম সময় নেয়। যেমন ধরুন, -৩০ ডিগ্রি কিংবা -৪০ ডিগ্রি সেলসিয়াসে কোনো প্রোডাক্ট ঠান্ডা করতে এই কমার্শিয়াল মেশিন সর্বোচ্চ ৩০-৩৫ মিনিট সময় নিবে। ফ্রেশ শাকসবজি, সামুদ্রিক মাছ, কাচা গোশত, বিভিন্ন ফুড, ভ্যাকসিন সহ অন্যান্য গুরুত্বপুর্ন মেডিসিন, বা ক্যামিকেল -১৮ ডিগ্রী সেলসিয়াস থেকে -৪৫ ডিগ্রী সেলসিয়াস টেম্পারেচারে ঠান্ডা কিংবা সংরক্ষণ করার জন্য সাধারণত ব্লাস্ট ফ্রিজার ব্যাবহার করা হয়ে থাকে।

কমার্শিয়াল ব্লাস ফ্রিজার কি কি উপাদান দিয়ে তৈরি করা হয়েছে?
যেহেতু ব্লাস্ট ফ্রিজার বাণিজ্যিক উদ্দ্যেশে বিভিন্ন ইন্ডাস্ট্রিয়াল, ফুড ফ্যাক্টরি, মেডিকেল সেক্টরে ব্যাবহার করা হয়ে থাকে, সেহেতু এর গঠন খুবই উন্নতমানের হবে, স্বাভাবিক। আমাদের এই ব্লাস্ট ফ্রিজারটিও খুবই উন্নত ভাবে তৈরি করা হয়েছে। এর বাহিরের অংশটা তৈরিতে ফুড গ্রেডের পিভিসি ম্যাটারিয়াল ব্যাবহার করা হয়। PVC ম্যাটারিয়াল গুলো খুবই সফট ও ফ্লেক্সিবল হয়ে থাকে। পিভিসি ম্যাটারিয়াল দ্বারা খাবারের কোয়ালিটির কোনো পরিবর্তন হয়না। ফ্লিজারের ভেতরের অংশ পুরোটাই AISI304 স্টেইনলেস ষ্টীল ম্যাটারিয়াল ব্যাবহার করা হয়েছে। যাতে সহজে ময়লা জমবেনা, জং ধরবেনা, সহজে পরিষ্কার করে ফেলা যায়।

ব্লাস্ট ফ্রিজিং মেশিন কেনো ব্যাবহার করা হয়?
খাবারের গুণগত মান বজায় রেখে, ব্যাক্টেরিয়া থেকে নিরাপদে রেখে, খাবারের ভ্যালু ঠিক রেখে দ্রুত ও অধিক তাপমাত্রায় ঠান্ডা করার জন্য ব্লাস্ট ফ্রিজিং ব্যাবহার করা হয়। সাধারণ ফ্রিজের তুলনায় ব্লাস্ট ফ্রিজারে খাবার বা অন্যান্য প্রোডাক্ট খুব দ্রুত ঠান্ডা করে। সাধারণত ৮৹ থেকে ৬৮৹ খাবার জাতীয় প্রোডাক্ট কিংবা অন্যান্য প্রোডাক্টে ব্যাকটেরিয়া আক্রমণ করতে পারে। তাই তাপমাত্রা যত কমিয়ে আনবেন ততই খাবার বা অন্যান্য জিনিস নিরাপদ থাকবে। নরমাল ফ্রিজে

কমার্শিয়াল ব্লাস্ট ফিজার সর্বোচ্চ কত তাপমাত্রায় যেকোনো প্রোডাক্ট ফ্রিজিং করতে পারে?
একটি কমার্শিয়াল ব্লাস্ট ফিজারের আদর্শ তাপমাত্রা হলো -১৮ ডিগ্রী সেলসিয়াস থেকে -৪৫ ডিগ্রী সেলসিয়াস। মানে ভ্যাকসিন সহ অন্যান্য গুরুত্বপুর্ন মেডিসিন, ফ্রেশ শাকসবজি, সামুদ্রিক মাছ, কাচা গোশত, ক্যামিকেল, বা অন্যান্য প্রোডাক্ট -৪৫৹ সেলসিয়াস তাপমাত্রায় ঠান্ডা করতে পারেন। সাধারণত এই তাপমাত্রায় খাবার জাতীয় প্রোডাক্ট কিংবা মেডিসিন জাতীয় প্রোডাক্ট গুনগত মান বজায় রেখে সংরক্ষণ করতে পারে।

একটি কমার্শিয়াল ব্লাস্ট ফ্রিজার কিভাবে কাজ করে এবং দ্রুত ঠান্ডা হয়?
বেশিরভাগ ফ্রিজার খাবার বা অন্যান্য প্রোডাক্ট ঠান্ডা করার জন্য শক্তিশালী কুলিং ফ্যান ব্যাবহার করে থাকে। যখন ফ্রিজারে যেকোনো প্রোডাক্ট রাখবেন তার উপর ফ্যানের বাতাস অনবরত হতে থাকে। তাছাড়া অন্যান্য ফ্রিজার মেশিন তাদের ডিজাইন অনুযায়ী অপারেট হয়। ধরেন আপনি গরম খাবারকে ফ্রিজার রুমে ট্রে বা শেলফে রাখলেন। তারপর মেশিন চালালে আস্তে আস্তে তাপমাত্রা কমে এই খাবারকে ঠান্ডা করে ফেলবে।

ব্লাস্ট ফ্রিজারে খাবার ফ্রিজিং বা সংরক্ষণ করা কি নিরাপদ?
হ্যাঁ, শতভাগ নিরাপদ। ব্লাস্ট ফ্রিজার দিয়ে খাবার ফ্রিজিং করা কিংবা প্রিজার্ভ করা শতভাগ নিরাপদ। কেননা, খাবারে ব্যাক্টেরিয়া জন্মানোকে শক্তভাবে বাধা দেয় ব্লাস্ট ফ্রিজিং প্রোসেস।

কোন কোন জায়গায় ব্লাস্ট ফ্রিজার বেশি ব্যাবহার করা হয়?
এই জাতীয় ফ্রিজার গুলো সাধারণত বড় বড় ফুড ইন্ডাস্ট্রিয়াল ফ্যাক্টরিতে ব্যাবহার করা হয়। তাছারা বায়ো ক্যামিকেল কোম্পানিতে ক্যামিকেল ঠান্ডা করে প্রিজার্ভ করে রাখার জন্য ব্লাস্ট ফ্রিজার ব্যাবহার করা লাগবে। যেমন, ফিসারির মাছ চাষের প্রকল্পে কিছু মেডিসিন আছে যা অনেক বেশি তাপমাত্রায় সংরক্ষণ করতে হয়। অধিক তাপমাত্রা না হলে মাছের ওষুধ নষ্ট হয়ে যাওয়ার সম্ভাবনা থাকতে পারে। ফুড প্রোসেসিং ইন্ডাস্ট্রি কিংবা বড় বড় রেস্টুরেন্টে খাবার প্রিজার্ভ করে রাখার জন্য এই ব্লাস্ট ফ্রিজার ব্যাবহার করতে পারে। কেননা এসব জায়গায় অনেক পরিমাণ খাবার প্রিজার্ভ করা লাগে। সাধারণ রেফ্রিজারেটরে খাবার ফ্রোজেন হতে অনেক সময় নেয়। এতে খাবারের গুণগত মান নষ্ট হয়ে যেতে পারে। তাই খাবারের কোয়ালিটি যেনো নষ্ট না হয় সে জন্য ফুড ইন্ডাস্ট্রি ও বড় বড় রেস্টুরেন্টের মালিক গণের কাছে ব্লাস্ট ফ্রিজার অটো চয়েজ।

ব্লাস্ট ফ্রিজারে যেকোনো প্রোডাক্টের আদর্শ ফ্রিজিং তাপমাত্রা কত হতে পারে?
এটা আসলে বলা মুশকিল। কেননা একেকরকম প্রোডাক্ট একেক তাপমাত্রায় তার কোয়ালিটি বজায় থাকে। কত তাপমাত্রায় একটি প্রোডাক্ট হাইজিনি মেইনটেইন করে নিরাপদ থাকবে তা একজন স্পেশালিস্টের সাথে পরামর্শ করে নেওয়াই ভালো।

এই ব্লাস্ট ফ্রিজারে কি রিমোট কন্ট্রোল সিস্টেম চালু আছে?
জী, কমার্শিয়াল এই ফ্রিজারে রিমোট কন্ট্রোল সিস্টেম চালু আছে। আপনি চাইল ম্যানুয়ালিও মেশিন চালাতে পারবেন।

ইন্ডাস্ট্রিয়াল ব্লাস ফ্রিজারের কি কি সেফটি দিক খেয়াল রাখা জরুরী?

যেকোনো মেশিন চালানোর পুর্বে মেশিনের A to Z জানা আবশ্যক। নতুবা যেকোনো সময় সমস্যা হতে পারে। তাই আমরা সবসময় আমাদের রিকমান্ড করবো যে, মেশিন চালানোর পুর্বে অবশ্যই মেশিনের খুটিনাটির ব্যাপারে অবগত হয়ে চালাবেন।

মেশিন অপারেট করার পুর্বে ম্যানুয়াল গাইডটি অবশ্যই একবার পড়ে নিবেন।
মেশিনের কম্পোনেন্টস বিশেষ করে কন্ট্রোলার নিজ থেকে পরিবর্তন করা যাবেনা। অবশ্যই অভিজ্ঞ টেকনিশিয়ান দ্বারা পরিবর্তন করাবেন।
বৈদ্যুতিক সাপ্লাই লাইন চেক করে নিবেন।
মেশিন যখন পরিষ্কার করবেন তখন অবশ্যই সকল বৈদ্যুতিক লাইন বন্ধ করে নিবেন।
এই মেশিনে কখনো ফ্লেমাবল ম্যাটারিয়াল স্টোর করা যাবেনা।
মেশিনে হাই পাওয়ার কোনো ব্যাটারি ব্যাবহার করবেন না।
মেশিন নাড়াচাড়া করার সময় মেশিনের ভিতরে কিছু রাখবেন না।

ব্লাস্ট ফ্রিজার ব্যাবহারে কি কি সুবিধা পাওয়া যায়?
ব্লাস্ট ফিজার দিয়ে খাবার প্রিজার্ভ করলে খাবারের নিউট্রিশান ভ্যালু ঠিক থাকে।
ব্লাস্ট ফ্রিজার দিয়ে খাবার প্রিজার্ভ করলে খাবারের স্বাদ অক্ষত থাকে।
খাবারের রঙ অপরিবর্তিত থাকে।
মেডিসিনের কোয়ালিটি বজায় থাকে।
ফুড ইন্ডাস্ট্রিগুলোতে খাবার সংরক্ষণে বিভিন্ন ব্যাক্টেরিয়া কিংবা অন্যান্য ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র ভাইরাস যেনো না জন্মাতে পারে তার জন্য ব্লাস্ট ফ্রিজিং খুবই নিরাপদ।
অধিক পরিমাণ খাবার ও মেডিসিন সংরক্ষণের জন্য ব্লাস্ট ফ্রিজারের বিকল্প নাই।
গরম তাপমাত্রার খাবার কে নিমিষেই ফ্রিজিং করতে পারে এই ব্লাস্ট ফ্রিজার।
বরফ জমে থাকেনা।
কমপ্রেসর ইউনিট সহ সকল মেশিনারিজ সহজেই মেইনটেনেন্স করা যায়।

বিদ্যুৎ না থাকলে এই ব্লাস্ট ফ্রিজার কি চালাতে পারবো?

২৩০ ভোল্টেজের কমার্শিয়াল ব্লাস্ট মেশিনটি অটোমেটিক মেশিন। পাওয়ার ছাড়া অপারেশন কল্পনা করা যায় না। তবে বিদ্যুৎ না থাকলে এর পরিবর্তে হাই পাওয়ার সোলার কিংবা জেনারেটর দিয়ে এই ফ্রিজারটি আপনি অনায়সে চালাতে পারেন।

এই মেশিনটির লাইফটাইম কেমন মানে কত বছর সার্ভিস দিতে সক্ষম?

খুবই উন্নতমানের ম্যাটারিয়াল দিয়ে এই ব্লাস্ট ফ্রিজার মেশিনটি তৈরি করা হয়েছে। যা খুবই মজবুত, টেকসইয়ের নিশ্চয়তা দেয়। তবে কোনো মেশিন কত বছর সার্ভিস দিবে কিংবা কত বছর টেকসই থাকবে তা পুরোটাই নির্ভর করবে আপনার ব্যাবহারের উপর কিংবা চালানোর দক্ষতার উপর এবং মেইনটেনেন্সের উপর। দক্ষ অপারেটর দিয়ে মেশিন অপারেট করাই অধিকতর শ্রেয়। এই হেভি ফ্রিজিং মেশিনে গুনগত মানের উপর নির্ভর করে বলা যায় আগামী ২০-২৫ বছরেও আরামসে চালাতে পারবেন।

ফ্রিজার রুম সেরা নাকি ব্লাস্ট ফ্রিজারের সেরা?
ফ্রিজার রুম নাকি ব্লাস্ট ফ্রিজার, আপনি যখন সিদ্ধান নিবেন কোনটা নিবেন, তখন অবশ্যই কিছু বিষয়ের দিকে খেয়াল দেয়া জরুরী। যেমন ফ্রিজার রুম বা ব্লাস্ট ফ্রিজারে কোনটায় অপশন বেশি থাকে, যেটা ব্যাবহার করলে আপনি ব্যাবসায়িক ভাবে বেশি লাভবান হবে আপনি অবশ্যই সেটাই কিনবেন। ফ্রিজার রুম মূলত ডিজাইন করা হয়েছে যাতে অধিক পরিমাণ প্রোডাক্টস ও ম্যাটারিয়াল একত্রে স্টোর করতে পারেন। আর ব্লাস্ট ফ্রিজার হলো একটি প্রোডাক্ট কত দ্রুত ফ্রিজিং হতে পারে তার জন্য ব্যাবহার করা। সাধারণত ব্লাস্ট ফ্রিজার দিয়ে প্রোডাক্ট কে ১৮ থেকে ৪৫ ডিগ্রী সেলসিয়াসে তাপমাত্রায় খুব তাড়াতাড়ি ফ্রিজিং করা হয়। খাবারে যেনো ব্যাকটেরিয়া না জন্মে তার জন্য ব্লাস্ট ফ্রিজারের ফুড প্রোসেসিং সিস্টেম অনবদ্য।

কমার্শিয়াল ব্লাস্ট ফ্রিজারের ওয়ারেন্টি কত বছরের?

আমাদের এই কমার্শিয়াল ব্লাস্ট ফ্রিজারে রয়েছে ১ বছরের ফ্রি সার্ভিস ওয়ারেন্টি। এই সময়ের মধ্যে মেশিনে কোনো সমস্যা দেখা দিলে আমাদের সার্ভিসিং টিম দ্রুত সময়ে অনলাইনে কিংবা অফলাইনে সমস্যা সমাধান করে দিবে। এক্ষেত্রে যদি কোনো পার্টস ক্রয় করা লাগে তবে তা আমাদের কোম্পানি খরচ বহন করবেনা, আপনাকে পার্টসের মূল্য পরিশোধ করতে হবে। ১ বছরের পর যদি মেশিনে সমস্যা দেখা দেয় তবে সেক্ষেত্রে সার্ভিসিং চার্ট অনুযায়ী পেমেন্ট করতে হবে

প্রোডাক্ট লিঙ্কঃ www.nobarunbd.com/commercial-blast-freezer-price-in-bangladesh

Mr. Mahin
+8801810004009
Whatsapp
nobarunbd@gmail.com

H#199 (1st Floor), R#01, New DOHS Mohakhali, Dhaka-1206, Bangladesh

Categories

সুপারশপের র‍্যাক

কমার্শিয়াল কিচেন ইকুইপমেন্ট

রেস্টুরেন্ট ইকুইপমেন্ট

কার পার্কিং ম্যানেজমেন্ট

ডিজিটাল গেট সিস্টেম

মেটাল ডিটেকটর সিস্টেম

রোড সেফটি প্রোডাক্টস

সুপারশপ ফ্রিজ

সুপারশপ ইকুইপমেন্ট

স্পেশাল প্রোডাক্টস

স্লটারহাউজ ইকুইপমেন্ট

কোল্ড স্টোরেজ সমাধান

Product Tags