logo

Our Blog

জুস ডিসপেন্সার মেশিনের খুটিনাটি যা আপনার অবশ্যই জানা দরকার।

জুস ডিসপেন্সার মেশিনের খুটিনাটি যা আপনার অবশ্যই জানা দরকার।

প্রচন্ড গরমে বা ক্লান্তিতে এক গ্লাস ঠান্ডা জুস বা শরবত খেলে শরীর এবং মন দুইটাই চাঙ্গা হয়ে যায়। আর রেস্টুরেন্টে বা ফাস্টফুডে খেতে গেলে জুস ছাড়া খাওয়াটা অপূর্ণ থেকে যায়। আজকে আলোচনা করব কমার্শিয়াল জুস ডিসপেন্সার নিয়ে। রেস্টুরেন্ট, ফাস্ট ফুড, জুস বার বা কর্নার, ফুড কোর্ট এবং কেন্টিনে জুস তৈরি করে ঠান্ডা করা, জুস মিক্সিং করা এবং সাজিয়ে রেখে বিক্রি করা হয় যে মেশিনে তাকেই জুস ডিসপেন্সার মেশিন বলে। চলুন জুস ডিসপেন্সার মেশিনের সকল বিস্তারিত তথ্য জেনে নেওয়া যাক।   

  • মেশিনের ধরনঃ জুস ডিসপেন্সার মেশিন সাইজ এবং ক্যাপাসিটির উপর ভিত্তি করে সাধারণত ৩ ধরণের হয়ে থাকে। ২ চেম্বার, ৩ চেম্বার এবং ৪ চেম্বার। এই মেশিনটি চেম্বার ওয়াইজ বিভিন্ন সাইজের হয়ে থাকে। চাহিদা অনুযায়ী যে কোন ধরণের জুস ডিসপেন্সার মেশিন পাবেন আমাদের কাছে।
  • চেম্বার ক্যাপাসিটিঃজুস ডিসপেন্সার মেশিনে ধরণ অনুযায়ী ছোট এবং বড় অনেক ধরণের জুস রাখার জার বা চেম্বার থাকে। সাইজ অনুযায়ী প্রতি চেম্বারে ১২ লিটার থেকে শুরু করে ২৫ লিটার পর্যন্ত জুস রাখা যায়। সাধারণত ছোট মেশিনের চাহিদা বড় মেশিনের থেকে অনেক বেশি হয়ে থাকে। কাস্টমারের যদি কোন স্পেশাল চাহিদা থাকে তবে আমরা চাহিদা অনুযায়ী যে কোন ক্যাপাসিটির জুস ডিসপেন্সার মেশিন আমদানি করে এনে দিতে পারব।
  • টেম্পারেচারঃজুস ডিসপেন্সার মেশিন এর জুসের টেম্পারেচার সবসময় প্লাস ৫ ডিগ্রী সেলসিয়াস থেকে শুরু করে মাইনাস ৫ ডিগ্রী সেলসিয়াস পর্যন্ত হয়ে থাকে। যা সাধারণত জুসের জন্য খুবই উপযোগী। এই মেশিনের স্পেশালিটি হল জুসকে মাইনাস ডিগ্রী সেলসিয়াস টেম্পারেচারে রেখেও জুসকে জমতে দেয় না, জুসকে একেবারে তরল অবস্থায় রাখে সবসময়।
  • বিদ্যুৎ খরচঃএই জুস ডিসপেন্সার মেশিনে একটি ফ্রিজিং সিস্টেম এবং একটি মিক্সিং সিস্টেম একসাথে অপারেট হয়। বিদ্যুৎ খরচ কমানোর জন্য এই মেশিনে ব্যবহার করা হয়ে থার্মোস্ট্যাট সহ নানান ধরণের উন্নত প্রযুক্তি। নিশ্চিত হয়েই বলা যায় যে, এই মেশিনের বিদ্যুৎ খরচ সাধারণ ফ্রিজের চেয়েও অনেক কম।
  • আকর্শনীয় ডিজাইনঃএই মেশীনটির আধুনিক এবং নজরকারা ডিজাইন সবার নজর কারে। এই মেশিনটির সহজ ব্যবহার, মেশিনের কার্যকারিতা, সুন্দর এবং নান্দনিক ডিজাইনের কারণে এই মেশিনের চাহিদা দিন দিন বেড়েই চলেছে। মেশিনের ডিজাইন অনেক সুন্দর হওয়ার কারণে যে কোন পরিবেশে মেশিনটি ব্যবহার করা যায়।
  • সহজ ব্যবহারঃমেশিটি ব্যবহার করা অনেক সহজ। মেশিনে জুস ভরার জন্য মেশিনের জারের উপরের ঢাকনা খুলে জুস ঢালতে হবে এবং মেশিনের সুইচ অন করতে হবে, তারপর ৫ থেকে ৭ মিনিট সময় দিতে হবে জুস ঠান্ডা হওয়ার জন্য। জুস ঠান্ডা হয়ে যাওয়ার পর এই মেশিন জুস সার্ভ করার জন্য প্রস্তুত। মেশিন থেকে জুস বের করার জন্য হাত দিতে নজেলে চাপ দিলেই জুস বের হয়ে যায়। জুস ডিসপেন্সার মেশিন এর ব্যবহার এতটাই সহজ যে বাচ্চা থেকে শুরু করে বৃদ্ধ সকলেই এই মেশিন ব্যবহার করতে পারবে কোন রকম সমস্যা ছাড়াই।
  • ওয়ারেন্টিঃজুস ডিসপেন্সার মেশিনের সাথে আমরা ১ বছরের ফ্রি সার্ভিস ওয়ারেন্টি দিয়ে থাকি, এই সময়ের মধ্যে জুস ডিসপেন্সার মেশিনে কোন ধরণের সমস্যা হলে অথবা মেশিনটি ঠিকমত না চললে আমাদের সার্ভিসের নাম্বারে বা হট লাইনে কল দিয়ে বিষয়টি জানালে আমরা মেশিনটি ফ্রি সার্ভিস করে দেওয়ার ব্যবস্থা করে দিব। এই সময়ের পরে যদি মেশিনটিতে কোন সমস্যা হয় সেক্ষেত্রে আমাদের সার্ভিস চার্ট অনুযায়ী আমরা সার্ভিস বিল নিয়ে থাকি।

প্রোডাক্ট এর স্পেসেফিকেশন

·        পাওয়ার সাপ্লাই
·        ২২০ ভোল্ট
·        ক্যাপাসিটি
·        বিভিন্ন  
·        চেম্বার
·        ২ / ৩ / ৪ চেম্বার
·        কালার
·        গ্রিন / ইয়েলো
·        মেইড ইন
·        চায়না
·        সার্ভিস ওয়ারেন্ট
·        ১ বছর
·        কুলিং সিস্টেম
·        হ্যাঁ
·        মিক্সিং সিস্টেম
·        হ্যাঁ

এক ঝলকে প্রোডাক্ট ভিডিও দেখে নিন


 

চলুন জেনে নেই জুস ডিসপেন্সার মেশিন সম্পর্কে প্রচলিত কিছু প্রশ্ন ও উত্তরঃ

প্রশ্নঃ জুস ডিসপেন্সার কি?

উত্তরঃ জুস ডিসপেন্সার হচ্ছে একটি ফ্রিজিং জুস ডিসপ্লে মেশিন। যে মেশিনের মাধ্যমে জুস বা শরবত ঠান্ডা করার পাশাপাশি জারে ভরে মিক্সিং করা, সাজিয়ে সাজিয়ে রাখা যায় এবং প্রয়োজন অনুযায়ী জুস বা শরবত বের করা যায় তাকে জুস ডিসপেন্সার মেশিন বলে।

-----------------------------------------------------------------------------------

প্রশ্নঃ জুস ডিসপেন্সার কি কি ধরনের হয়ে থাকে?

উত্তরঃ সাইজের উপর নির্ভর করে জুস ডিসপেনসার মেশিন সাধারণত ৩ ধরণের হয়ে থাকে। যেমন দুই চেম্বার, তিন চেম্বার এবং চার চেম্বার।

-----------------------------------------------------------------------------------

প্রশ্নঃ জুস ডিসপেন্সার এর ক্যাপাসিটি কত বিস্তারিত জানতে চাই?

উত্তরঃ জুস ডিসপেনসার মেনিনের ক্যপাসিটি নির্ভর করে মেশিনটি কত চেম্বারের, তার উপর। এই ধরণের মেশিন সাধারণত ৩২ লিটার ক্যাপাসিটি থেকে শুরু করে ৮০ লিটার ক্যাপাসিটি পর্যন্ত হয়ে থাকে।

-----------------------------------------------------------------------------------

প্রশ্নঃ জুস ডিসপেন্সার কেনো ব্যবহার করা হয়?

উত্তরঃ জুসকে ঠান্ডা রাখাসহ জুসকে সব সময় মিক্সিং করা এবং ডিসপ্লে করার জন্য জুস ডিসপেন্সার ব্যবহার করা হয়ে থাকে। এতে করে ব্যবহারকারী কোন সমস্যা ছাড়াই অল্প সময়ে অধিক পরিমান জুস বিক্রি করতে পারে বা পরিবেশন করতে পারে।

-----------------------------------------------------------------------------------

প্রশ্নঃ কোন কোন জায়গায় জুস ডিসপেন্সার ব্যবহার করা উচিৎ?

উত্তরঃ যে কোন খাবার সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠানে জুস ডিসপেনসার মেশিন ব্যবহার করতে পারেন। নির্দিষ্ট করে বলতে গেলে জুস বার, রেস্টুরেন্ট, ফুড কোর্ট, কেন্টিন এবং ফুড হলে ব্যবহার করতে পারেন এই জুস ডিসপেন্সার মেশিন।

-----------------------------------------------------------------------------------

প্রশ্নঃ জুস ডিসপেন্সার মেশিনে কয়টি ইউনিট রয়েছে এবং কি কি?

উত্তরঃ জুস ডিসপেন্সার মেশিনের সাধারণত একটু কুলিং ইউনিট থাকে এবং একটি ডিসপ্লে ইউনিট মোট এই দুইটি ইউনিট থাকে। খুব দ্রুত সময়ের মধ্যে জুস ঠান্ডা করার জন্য মেশিনে উন্নতমানের কুলিং সিস্টেম ব্যবহার করা হয়েছে এবং জুস ডিসপ্লে করার জন্য ফুড গ্রেড প্লাস্টিকের তৈরি জার থাকে।

প্রশ্নঃ জুস ডিসপেন্সার এর লাইফটাইম কেমন মানে কত বছর সার্ভিস দিতে সক্ষম?

উত্তরঃ যে কোন মেশিনের লাইফটাইম নির্ভর করে মেশিনের ব্যবহারের উপর। তারপরও বলতে গেলে এই মেশিনটি সাধারণত ১৫ থেকে ২০ বছর ব্যবহার করা যায় কোন রকম সমস্যা ছাড়াই।

-----------------------------------------------------------------------------------

প্রশ্নঃ জুস ডিসপেন্সার ব্যবহারের ফলে বিদ্যুৎ বিল কি পরিমান আসতে পারে জানাবেন কি?

উত্তরঃ আগেই বলেছি জুস ডিসপেন্সার মেশিনটি কয়েকটি ক্যাপাসিটির হয়ে থাকে, যার ফলে একেকটি মেশিন একেক রকম বিদ্যুৎ খরচ করে থাকে। আনুমানিক ভাবে বলতে গেলে মেশিনের ক্যাপাসিটি অনুযায়ী প্রতি দশ ঘন্টায় এই মেশিন চালালে ৩০ টাকা থেকে শুরু করে ৪০ টাকা বিদ্যুৎ বিল আসতে পারে।

-----------------------------------------------------------------------------------

প্রশ্নঃ জুস ডিসপেন্সারে জুস ঠান্ডা হতে কেমন সময় নেয়?

উত্তরঃ জুস ডিসপেন্সারে জুস ঠান্ডা হতে ৫ থেকে ৭ মিনিট সময় নেয়। এই সময়ের পর থেকে মেশিনটি জুস সার্ভ করার জন্য প্রস্তুত হয়ে যায়।

-----------------------------------------------------------------------------------

প্রশ্নঃ কিভাবে জুস ডিসপেন্সার  মেশিন অপারেট বা ব্যবহার করতে হয়?

উত্তরঃ জুস ডিসপেন্সার অপারেট করা খুব সহজ কাজ। প্রথমে জারে জুস ঢেলে দিতে হবে। তারপর অপেক্ষা করতে হবে ৫ থেকে ৭ মিনিট, এই সময়ের মধ্যে জুসটি ঠান্ডা হবে। তারপর জুস ডিসপেন্সারের নজেলে চাপ দিয়ে পছন্দমত কাপ বা গ্লাসে জুস বের করে সার্ভ করুন।

-----------------------------------------------------------------------------------

প্রশ্নঃ বিদ্যুৎ না থাকলে জুস ডিসপেন্সার কিভাবে ব্যবহার করবো?

উত্তরঃ বিদ্যুৎ না থাকলে অন্যান্য যে কোন পাওয়ার সিস্টেমের মাধ্যমে জুস ডিসপেন্সার মেশিন চালানো যায়। যেমন জেনারেটর, সোলার সিস্টেম এবং আইপিএস ইত্যাদি।

-----------------------------------------------------------------------------------

প্রশ্নঃ জুস ডিসপেন্সার দিয়ে কি কি প্রোডাকশন করা সম্ভব?

উত্তরঃ জুস ডিসপেন্সার দিয়ে যে যে কোন ফলের জুস বা সিরাপ জুস জারে ডিসপ্লে করে এবং ঠান্ডা করে পরিবেশন করা যায়।

-----------------------------------------------------------------------------------

প্রশ্নঃ জুস ডিসপেন্সার এর সাইজ সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে চাই।

উত্তরঃ ক্যাপাসিটি অনুযায়ী বিভিন্ন সাইজের হয়ে থাকে এই মেশিন। এর মধ্যে সব থেকে ছোট ২ চেম্বারের মেশিন এবং সব থেকে বড় ৪ চেম্বারের মেশিন।

-----------------------------------------------------------------------------------

প্রশ্নঃ কোন কোন দেশ জুস ডিসপেন্সার বানায়? আমাদের দেশেও কি জুস ডিসপেন্সার বানানো সম্ভব?

উত্তরঃ জুস ডিসপেন্সার মেশিন চীনসহ উন্নত দেশগুলো তৈরি করে থাকে। আমরা এই মেশিনটি চীন দেশ থেকে আমদানি করে বাংলাদেশে বিক্রি করে থাকি।

আমাদের দেশেও এই মেশিন তৈরি করা সম্ভব তবে এখন পর্যন্ত কোন কোম্পানি এই মেশিন বাংলাদেশে তৈরি করেনি এবং আমাদের দেশের জুস ডিসপেন্সার মেশিনের প্রায় ১০০% মার্কেট দখল করে আছে চাইনিজ প্রোডাক্ট।

-----------------------------------------------------------------------------------

প্রশ্নঃ জুস ডিসপেন্সার এর স্পেশাল কোন সুবিধা আছে কি? থাকলে জানতে চাই।

উত্তরঃ জুস ডিসপেন্সার মেশিনের স্পেশাল সুবিধা হল, মেশিনটি জুসকে মাইনাস ডিগ্রী টেম্পারেচার করে এবং এই টেম্পারেচারে থাকলেও জুসকে জমতে দেয় না, মানে জুসকে সম্পূর্ন তরল রাখে।

-----------------------------------------------------------------------------------

প্রশ্নঃ জুস ডিসপেন্সার মেশিন এর দাম কেমন?

উত্তরঃ আমরা যেহেতু জুস ডিসপেন্সার মেশিন দেশের বাইরে থেকে ইমপোর্ট করে নিয়ে আসি তাই বিশ্ববাজারের দাম, ভ্যাট, ট্যাক্স ইত্যাদি খরচের উপর ভিত্তি করে আমাদের একেক সময় একেক রকম দাম পড়ে। তাই বর্তমান দাম জানতে এই মোবাইল নাম্বারে দয়া করে আমাদেরকে কল করুনঃ ০১৭১১ ৯৯৮৬২৬

আমাদের প্রতিনিধিগণ আপনাকে লেটেস্ট প্রাইস দিয়ে দিবে।

-----------------------------------------------------------------------------------

প্রশ্নঃ ঢাকা এবং ঢাকার বাইরে জুস ডিসপেন্সার মেশিন কিভাবে পাবো?  

উত্তরঃ আপনার লোকেশন যদি ঢাকা হয়ে থাকে তবে আপনি সরাসরি আমাদের অফিসের ঠিকানায় চলে আসতে পারেন। অফিসে এসে জুস ডিসপেন্সার মেশিনটি সামনাসামনি দেখে, প্রোডাক্ট চেক করে সব কিছু ঠিক থাকলে ক্যাশ টাকা দিয়ে প্রোডাক্ট কিনে নিয়ে যেতে পারেন। আর আপনি যদি ঢাকার বাহিরে অবস্থান করেন এবং আমাদের অফিসে আসা যদি আপনার সম্ভব না হয় তাহলে, আপনি চাইলে কুরিয়ারের কন্ডিশনাল পেমেন্টের মাধ্যমেও আমাদের প্রোডাক্ট ডেলিভারি নিতে পারেন। সেক্ষেত্রে আপনার নাম, মোবাইল নাম্বার এবং ঠিকানার সাথে আমাদেরকে ১০০০ টাকা বিকাশে বা ব্যাংকে এ্যাডভান্স করতে হবে। এ্যাডভান্স পেমেন্ট পাওয়ার পর আমরা জুস ডিসপেন্সার মেশিনটি কুরিয়ারে বুকিং করে দিব, তার পরবর্তী ১-২ দিনের মধ্যে আপনি কুরিয়ারে মাল পেয়ে যাবেন।কুরিয়ারের মাধ্যমে প্রোডাক্ট ডেলিভারি নিলে কুরিয়ারের সকল চার্জ কাস্টমারকে বহন করতে হবে।

-----------------------------------------------------------------------------------

প্রশ্নঃ জুস ডিসপেন্সার কেনার জন্য পেমেন্টের সিস্টেম কি?

উত্তরঃ আমাদের অফিসে এসে প্রোডাক্ট কিনে নিয়ে গেলে প্রোডাক্টের সম্পূর্ণ টাকা ক্যাশ পেমেন্ট করতে হবে। আর যদি কুরিয়ারের কন্ডিশনাল পেমেন্টে প্রোডাক্ট ডেলিভারি নিতে চান সেক্ষেত্রে আমাদেরকে ১০০০ টাকা বিকাশে বা ব্যাংকে এ্যাডভান্স করতে হবে এবং বাকি টাকা মাল ডেলিভারি নেওয়ার সময় কুরিয়ার পেমেন্ট করতে হবে।

-----------------------------------------------------------------------------------

প্রশ্নঃ কুরিয়ার খরচ আনুমানিক কেমন হবে?

উত্তরঃ এটা নির্ভর করে প্রোডাক্টের সাইজের উপর, মানে কার্টোন যত বড় হবে তার উপর নির্ভর করবে কুরিয়ারের চার্জ কত হবে। সাধারনত প্রোডাক্টের সাইজ অনুযায়ী ২০০ টাকা থেকে শুরু করে ২০০০ টাকা পর্যন্ত কুরিয়ার খরচ হতে পারে।

-----------------------------------------------------------------------------------

প্রশ্নঃ বিক্রির পর সাপোর্ট পাবো কিভাবে?

উত্তরঃ আমাদের সার্ভিস বা সাপোর্টের নাম্বারে কল দিয়ে জুস ডিসপেন্সার মেশিনের সমস্যার কথা জানালেই আমরা আপনাকে সাপোর্ট দিব।আমরা সাধারণত আমাদের প্রোডাক্টের ১ বছরের ফ্রি সার্ভিস ওয়ারেন্টি দিয়ে থাকি। এই সময়ের মধ্যে প্রোডাক্টের যে কোন ধরণের সমস্যা হলে আমরা বিনা মূল্যে সার্ভিস করে দিব এবং এর পরে হলে সার্ভিস চার্জ দিতে হবে। প্রোডাক্ট সার্ভিস করতে যদি কোন পার্টস প্রয়োজন হয় তাহলে, কাস্টমার তার মূল্যে পরিশোধ করবে।

-----------------------------------------------------------------------------------

প্রশ্নঃ ঢাকায় বা বাংলাদেশে জুস ডিসপেন্সার মেশিন কে বা কারা বিক্রি করে? কিভাবে তাদের সাথে জুস ডিসপেন্সার কেনার জন্য যোগাযোগ করতে পারি? কোন প্রোডাক্ট লিঙ্ক দিতে পারবেন কি?

উত্তরঃ জুস ডিসপেন্সার মেশিন নবারুন ইন্টারন্যাশনাল বিক্রি করে থাকে।


Shovo
+8801810004006
Whatsapp
nobarunbd@gmail.com

H#199 (1st Floor), R#01 New DOHS Mohakhali Dhaka-1206,Bangladesh

Categories

সুপারশপের র‍্যাক

কমার্শিয়াল কিচেন ইকুইপমেন্ট

রেস্টুরেন্ট ইকুইপমেন্ট

কার পার্কিং ম্যানেজমেন্ট

ডিজিটাল গেট সিস্টেম

মেটাল ডিটেকটর সিস্টেম

রোড সেফটি প্রোডাক্টস

সুপারশপ ফ্রিজ

সুপারশপ ইকুইপমেন্ট

স্পেশাল প্রোডাক্টস

স্লটারহাউজ ইকুইপমেন্ট

কোল্ড স্টোরেজ সমাধান