logo

Our Blog

কমার্শিয়াল আইস ফ্লেক মেশিন কেনার আগে যা জানতেই হবে আপনাকে

কমার্শিয়াল আইস ফ্লেক মেশিন কেনার আগে যা জানতেই হবে আপনাকে

নানান ধরনের কাজের জন্য নানান ধরনের আইস মেশিন রয়েছে। তন্মদ্ধে আইস ফ্লেক মেশিন অন্যতম কারন এই ধরনের মেশিনগুলো বেশীরভাগ কমার্শিয়াল ইউজ করা হয়ে থাকে। তো আইস ফ্লেক মেশিন কেনার আগে ঠিক কি কি ব্যপারগুলোতে নজর রাখা জরুরী ও সাধারন কিছু প্রশ্ন ও উত্তর জানা লাগবনে সেগুলো নিয়েই আজকের এই লেখা, তো চলুন শুরু করা যাকঃ

উন্নতমানের কম্প্রেসর
সফট, মিহি ছাচালো বরফের জন্য এই কমার্শিয়াল ফ্লেক আইস মেকার মেশিনটি হবে আপনার জন্য হতে পারে একটি আদর্শ মেশিন। মেশিনটি তে রয়েছে একটি শক্তিশালী কম্প্রেসর। এই কম্প্রেসরটি দ্বারা খুবই অল্প আওয়াজ হয়, এবং বিদ্যুত খরচ কম। আপনি যদি কম সময়ে অধিক পরিমাণে বরফ তৈরি করতে চান তাহলে আপনার মেশিনের কম্প্রেসরটি হতে হবে ভালো ব্রান্ডের। আমাদের এটি ৯৫০ ওয়াটের SECOP মডেলের কম্প্রেসর।

প্রোডাকশন ক্যাপাসিটি
বাজারে বিভিন্ন ব্রান্ডের ও মডেলের আইস মেকার মেশি পাওয়া যায়। বিভিন্ন ব্রান্ডের মেশিনের প্রডাকশন ক্যাপাসিটি বিভিন্ন রকম হয়, এটাই স্বাভাবিক। মূলত ব্যাবসায়ীদের কথা চিন্তা করেই এই ফ্লেক আইস মেকার মেশিনটির স্টোরেজ ক্যাপাসিটি বাড়ানো হয়েছে। আমাদের এই আইস মেকার মেশিন দিয়ে আপনি ২০ থেকে ৫০০ কেজি পর্যন্ত ছাচালো বরফ তৈরি করতে পারবেন এবং কমপক্ষে ১০ থেকে ৩০০ কেজি পর্যন্ত বরফ সংরক্ষণ করতে পারবেন।

ফ্রেশ বরফের জন্য রয়েছে ওয়াটার ফিল্টার
আমরা জানি বরফ তৈরিতে পানির প্রয়োজন হয়। পানি যদি দূষিত হয় তাহলে বরফও দূষিত হবে। আর এই দূষিত বরফ থেকে বিভিন্ন রোগ জীবাণু আক্রমণ করতে পারে। তাই আমাদের এই ফ্লেক আইস মেকার মেশিনে বিশুদ্ধ মিহি ছাচালো বরফ পাওয়ার জন্য ওয়াটার ফিল্টার ব্যাবহার করা। ওয়াটার ফিল্টার টি আইস মেশিনের সাথে সরাসরি লাগানো থাকে। আপনি চাইলে মেশিনে দুইটি ওয়াটার ফিল্টার লাগাতে পারেন। নিয়মিত ফিল্টার মেশিন ও পানির লাইন চেক করে পরিষ্কার করা উচিত।

স্মার্ট কন্ট্রোল প্যানেল
বাটন ছাড়াই যদি অটোমেটিক্যালি মেশিন চলে তাহলে কেমন হবে ভাবুন তো! হ্যাঁ আমাদের এই ফ্লেক আইসার মেশিনটি অপারেট করার জন্য রয়েছে একটি LCD প্যানেল, যা সম্পুর্ন আপনার হাতের স্পর্শেই চলবে। শুধু পাওয়ার অন করবেন, মেশিন চালু হয়ে যাবে। এই প্যানেলে ইন্ডিকেটর লাইটস গুলোর মাধ্যমে মেশিনের বিভিন্ন কার্যাবলি মনিটরিং করতে পারেন। এই টাচিং প্যানেলে অন/অফ, মোড, টেম্পারেচার কমানো বাড়ানো সহ আরো বিভিন্ন ধরনের ফাংশন রয়েছে। এই স্মার্ট টাচের মাধ্যমে সহজেই আপনি আপনার ইচ্ছে মত ফ্লেক আইস উৎপন্ন করতে পারেন। স্টোরেজ বিন যদি বরফ দিয়ে ভরে যায় তাহলে এই স্মার্ট প্যানেল সিগন্যাল দিতে থাকবে।

স্টেইনলেস স্টিলের বডি ম্যাটারিয়াল
আমাদের এই ফ্লেইক কমার্শিয়াল আইস মেকার মেশিন টির এভাপরেটর সহ বাহিরের পুরো অংশটাই SUS 304 ফুড গ্রেডের স্টেইনলেস স্টিলের তৈরি। এ কারণে মেশিনের বডিতে মরীচা পড়েনা, স্বাস্থ্য সুরক্ষিত। স্টেইনলেস স্টিলের বডি হওয়াতে এটি খুবই মজবুত, পোলাইশড এবং সহজে পরিষ্কার করা যায়। মেশিনের দরজা টি খুবই মজবুত তাই শব্দ বাহিরে কম বের হয় এবং অন্যান্য ক্ষতি থেকে রক্ষা করে। স্টেইনলেস স্টিলের অগার, কার্বন বিয়ারিঙয়ের সাথে যুক্ত থেকে ভেজা পরিবেশে স্মুথলি কাজ করে।
আকর্ষনীয় ডিজাইন
ফ্লেক আইস মেশিনটি আকর্যনীয় ডিজাইনে তৈরি করা হয়েছে। মেশিনের দু পাশে ছোট ছোট অনেক ছিদ্র আছে, যা দিয়ে অতিরিক্ত তাপ বাহিরে সহজেই বের হয়ে যায়। এতে রয়েছে এডজাস্টেবল আইস থিকনেস, যার মাধ্যমে বরফ কে চিকন, মিডিয়াম করে মিহি করা যায়। মেশিনের পেছনের দিকে প্রি-ড্রিল্ গর্ত আছে যার মাধ্যমে পানি ফিল্টারিং হয়। এর মাধ্যমে বরফ গুলো স্বচ্ছ ও পরিষ্কার হয়। মেশিনটি কমপ্যাক্ট সাইজের জন্য এটি যেকোনো জায়গায় ব্যাবহার করা যাবে। মেশিনের চারটি এডজাস্টেবল পায়া আছে, যা দ্বারা সহজেই আপনি মেশিনকে এদিক সেদিক ঘুড়াতে পারবেন।

পাওয়ার ডিটেইলস
আমাদের এই কমার্শিয়াল ফ্লেক আইস মেশিনের পাওয়ার মাত্র ৩২০ কিলো ওয়াট। এই সিংগেল ফেজের মেশিন ১১০-২২০ ভোল্টেজের মাধ্যমে চলে। এর ফ্রিকোয়ন্সি ৫০-৬০ হার্জ। একটি মেশিন ব্যাবহার করলে মাসে কত বিদ্যুৎ খরচ হতে পারে, এটা আসলে কেউই সঠিক ভাবে বলতে পারবেনা। কারন মেশিন ব্যাবহারের উপর নির্ভর করে বিদ্যুৎ খরচ। LCD কন্ট্রোল প্যানেলের জন্য আপনি মেশিনটিকে সহজ ও নিরাপদে ব্যাবহার করতে পারবেন। আমাদের এই আইস মেকার মেশিনের সার্কিট বোর্ডটি সেরা উপাদান দ্বারা গঠিত।

মেইন্টেনেন্স
আইস মেশিননের বাহিরের অংশ পরিষ্কার করার পাশাপাশি ভিতরের অংশও নিয়মিত পরিষ্কার করতে হয়। কেননা, ব্যাকটেরিয়ার জন্ম হয় মেশিনের ভিতরের অংশে। ব্যাক্টেরিয়ার উপস্থিতি খালি চোখে দেখা যায় না। তাই পানির ফিল্টার, পানির লাইন, কনডেনসর কয়েল, ফান ব্লেড গুলো নিয়মিত পরিষ্কার করতে হবে। অপারেশনের সময় যদি ওয়াটার সাপ্লাই কিংবা পাওয়ার বন্ধ হয়ে যায় তাহলে অপারেশন সাময়িকভাবে বন্ধ হয়ে যাবে। কিন্তু আবার যখন পাওয়ার আসবে তখন অপারেশন যেখানে সাময়িকভাবে বন্ধ ছিলো সেখান থেকে অটোমেটিক্যালি আবার চালু হয়ে যায়। মেশিনের পার্টস গুলো খুবই মজবুত, তাই মেইনটেনেন্স খরচ খুবই কম।

ব্যাবহারের ক্ষেত্র
বিভিন্ন ধরনের বড় বড় খাবার হোটেল, সুপারমার্কেট গুলো তে, মেরিন ফিসারিজে, বিভিন্ন একুয়াটিক প্রোডাক্ট প্রোসেসিং, খাদ্য প্রোসেসিং, কফি শপ, কল্ড স্টোরেজ, শাকসবজি প্রিসার্ভেশনে, হাসপাতালে এই কমার্শিয়াল ফ্লেক আইস ব্যাবহার করা হয়। যেমন বিভিন্ন সুপার মার্কেট গুলোতে সী-ফুড সহ অন্যান্য দেশী মাছ এই ফ্লেক আইস দিয়ে তাজা রাখা হয় এবং সাজিয়ে রাখা হয়। ছাচালো বরফের উপর এইভাবে সাজিয়ে রাখা হলে তা দেখতে যেমন সুন্দর লাগবে তেমনই একজন কাস্টমারও আকর্ষিত হবে। আপনার বাবসার প্রসার ঘটার জন্য যা যথেষ্ট।

এইবার চলুন জেনে নেয়া যাক এই মেশিন সম্পর্কে একেবারে খুটিনাটি কিছু প্রশ্ন ও তার উত্তরঃ 

ফ্লেক আইস মেকার মেশিন কি?
বিভিন্ন সুপারমার্কেট সী ফুড সাজিয়ে রাখা, ইন্ডাস্ট্রিয়াল আইস প্ল্যান্ট, একুয়াটিক প্রোডাক্টস, মিট প্রোসেসিঙের জন্য ফ্লেক বরফ ব্যাবহার করা হয়। এতে আপনি স্বল্প খরচেই প্রোডাক্ট গুলোকে দীর্ঘক্ষণ সতেজ ও সংরক্ষণ করে রাখতে পারেন। কমার্শিয়ালি এই মেশিন দ্বারা আপনি কম সময়ে অধিক পরিমাণ ফ্লেক বরফ উৎপন্ন করতে পারবেন। পাওয়ারফুল কম্প্রেসার, অটোমেটিক ক্লিনিং, কুলিং ফ্যান, ওয়াটার ড্রেনেজ পাম্প মেশিনকে শক্তিশালী করে তুলেছে। মেশিনটি স্টেইনলেস স্টিলের তৈরি তাই ফ্লেক বরফগুলো খুবই স্বাস্থ্যকর।


ফ্লেক আইস মেকার মেশিন দিয়ে কি করা হয়?
ছাচালো টুকরো টুকরো বরফ বানানোর জন্য আমাদের এই ফ্লেক আইস মেকার মেশিন ব্যাবহার করা হয়। আপনি বিভিন্ন সী ফুড সহ একুয়াটিক প্রোডাক্টকে তাজা ও সাজিয়ে রাখার জন্য এই ফ্লেইক আইস মেশিন ব্যাবহার করা হয়। তাছাড়া মিট ও সসেজ প্রসিসিং করার জন্য এই মেশিন ব্যাবহার করা যায়।

ফ্লেক আইস মেকার মেশিন কিভাবে কাজ করে?
আইস কিউব মেশিনের মতই এই ফ্লেক আইস মেশিন কাজ করে। এর জন্য প্রথমত পরিষ্কার পানি দরকার হয়। সিলিন্ডার ভর্তি পানি মেশিনের সাথে সংযোগ থাকে। ওয়াটার ফিল্টারের মাধ্যমে পানি কে বিশুদ্ধ করে নিতে হয়। পানি যদি অপরিষ্কার হয় তাহলে বরফের টুকরাও অপরিষ্কার হবে। বরফ দেখতে স্বচ্ছ হবেনা। ওয়াটার লাইন দিয়ে পানি সহজেই মেশিনের স্টোরেজ ট্যাংকে প্রবেশ করে। স্টোরেজ ট্যাংক ন্যুনতম -৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রায় ঠান্ডা থাকে। কন্ট্রোল ভাল্বের মাধ্যমে ঠান্ডা পানি বরফ জমার ট্রে তে পতিত হয়ে বরফে পরিণত হয়। স্টেইনলেস স্টিলের তৈরি অগারটি ঘুড়ে মাধ্যমে বরফ কে ছেঁচে স্টোরেজ বিনে ফেলে। এই ফ্লেক আইস গুলোর সাইজ সমান হয় না। কিছু চিকন, কিংবা কিছু মাঝারি চিকন ফ্লেক আইস।

ফ্লেক আইস ও কিউব আইসের মধ্যে পার্থক্য কি?
ফ্লেক আইস ছাচালো টাইপের হয়। সাধারণত ফ্লেক বরফ গুলোর থিকনেস ১.৮ থেক ২.২ মিমি হয়ে থাকে। অপর পক্ষে কিউব আইস ছাচালো না, বিভিন্ন আকৃতিতে বানানো হয়। কোনোটা গোলাকার, কোনোটা আবার স্কয়ার শেপের। কিউব আইস গুলো খুবই শক্ত হয়ে।
বিভিন্ন সী ফুড ও একুয়াটিক প্রোডাক্টস, গোশত সুপারমার্কেটে সাজিয়ে রাখার জন্য ফ্লেক আইস ব্যাবহার করা হয়। আর আইস কিউব মূলত লাচ্ছি টাইপের বিভিন্ন ড্রিংক্স কিংবা অন্যান্য পানীয়তে ব্যাবহার করা হয়। তবে ফ্লেক আইস দিয়েও বিভিন্ন ড্রিংক্স পরিবেশন করতে পারবেন আপনি। কেননা এই ছাচালো বরফ পাতলা হওয়ার জন্য চাপ দিলে সহজেই ভাংগে।


এই মেশিন ব্যাবহারের আগে কি কি সেফটি রুলস অনুসরণ করতে হবে?

কানেকশান দেওয়ার পুর্বে ভোল্টেজ এর ব্যাপারে নিশ্চিত হতে হবে। কেননা মেশিনের রিকোয়ারমেন্ট ভোল্টেজ ভিন্ন হতে পারে। আপনি যখন এই ফ্লেক আইস মেকার মেশিন পরিষ্কার, রিপেয়ার কিংবা এদিক সেদিক ঘুড়াবেন তখন অবশ্যই পাওয়ার সংযোগ অফ রাখতে হবে। মেশিন চালু অবস্থায় কখনোই সার্কিট বোর্ডে হাত রাখবেন না। অবশ্যই বাচ্চাদের কে মেশিনের গায়ে হাত দেওয়া হতে কিংবা ব্যাবহার করা থেকে নিরাপদ দূরত্বে রাখবেন ।

আইস মেকার মেশিন ব্যাবহার করলে কি কি সুযোগ সুবিধা পাওয়া যাবে, বলুন তো?
আমাদের এই ফ্লেক আইস মেকার মেশিন ব্যাবহারের অনেক সুবিধা পাবেন আপনি। উল্লেখ যোগ্য গুলো হলোঃ
১। এই মেশিন কম সময়ে অধিক পরিমাণে ফ্লেক আইস তৈরি করে। খুব কম পানি অপচয় হয়।
২। মেশিনের স্মার্ট টাচ স্ক্রীন দ্বারা খুব সহজেই অপারেট করা যায়। বাটনের কোনো বাড়তি ঝামেলা নাই।
৩। এ মেশিনে রয়েছে ভালো মানের কম্প্রেসর, যা দ্রুত ঠান্ডা করা এবং স্ট্যাবল অপারেশনের নিশ্চয়তা প্রদান
করে।
৪। মেশিন অপারেশনের সময় শব্দ তুলনামূলক কম হয়। কেননা দরজার ভিতর থেকে শব্দ বাহিরে কম আসে।
দরজাটি খুবই মজবুত।
৫। অপারেশনের সময় পানি কমে গেলে ভয় পাবার কারন নাই। এতে মেশিন বন্ধ হয়ে যাবে অটোমেটিক।
পুনরায় যখন পানি আসা শুরু করবে তখন অটোমেটিক্যালি মেশিন স্টার্ট হয়ে যাবে।
৬। এই মেশিনটি যাবতীয় লিকেজ প্রোটেকশন সমৃদ্ধ যা আপনাকে দুশ্চিন্তা থেকে নিরাপদ রাখবে।
৭। বিদ্যুৎ এবং মেইনটেনেন্স খরচ কম হয়।
৮। বরফকে ১.৮ থেক ২.২ মিমি পর্যন্ত মিহি করে ছাচা হয়। আইস ক্রাশার মেশিনের প্রয়োজন পড়ে না।
৯। সহজেই ইন্সটল করা যায় ।

মেশিনের স্টোরেজ বিন ফুল হয়ে গেলে কি মেশিন বন্ধ হয়ে যাবে?
বেশির ভাগ আইস মেকার মেশিনগুলো এমন ভাবে তৈরি করা হয় যে এগুলো অটো বন্ধ হয়ে যায়। হ্যা, আমাদের এই ফ্লেক আইস মেকার মেশিনও অটোমেটিক্যালি বন্ধ হয়ে যাবে যখন স্টোরেজ বিন ফুল হয়ে যায়। মেশিন চালু দিয়ে দাঁড়িয়ে থাকার কোন প্রয়োজনই পড়েনা এবং এই ছাচালো আইস আপনি সরাসরি ব্যাবহার করতে পারেন।

আইস মেকার মেশিন কি অনেক বেশি বিদ্যুৎ খরচ করে?

সত্যি কথা বলতে কি, যে কোনো মেশিন ব্যাবহারের উপর নির্ভর করে বিদ্যুৎ বিল কত আসতে পারে। ব্যাবহার কম করলে বিদ্যুৎ বিল কম আসবে, আর যদি বেশি ব্যাবহার করেন তবে বিদ্যুৎ বিল বেশি আসবে। তবে আমাদের এই ফ্লেক আইস মেশিনটি ৩২০ কিলো ওয়াট বিদ্যুৎ খরচ করে।


আপনি কেনো ফ্লেক আইস মেকার মেশিন ক্রয় করবেন?
ক্যাফেটেরিয়া কিংবা বাফেটের জন্য ফ্লেক আইস মেশিন ক্রয় করতে পারেন। বিভিন্ন সুপারমার্কেট, সুপার শপ গুলো তে সামদ্রিক মাছ, শাকসবজি, দেশীয় মাছ সাজিয়ে রাখা যায়। এতে এগুলো ফ্রেশ থাকে। বড় রেস্টুরেন্ট পার্টি কিংবা ফ্যামিলি গেদারিংয়েও এই মেশিন ব্যাবহার করে স্নো কন্স কিংবা বিভিন্ন স্লাশি ড্রিঙ্কস কিংবা ডেজার্ট ব্যাবহার করতে পারেন যা দ্বারা আপনার ব্যাবসায়িক কাস্টমররা সাটিস্ফাইড হবেন কিংবা পরিবারের অতিথিরাও খুশি হবে। বড় বড় ইন্ডাস্ট্রিয়াল গুলোতে গোশত প্রোসেসিং এর কাজে ফ্লেক বরফ ব্যাবহার করা হয়। তাছাড়া বিভিন্ন দেশি বিদেশী মাছ, শাকসবজি সহ অন্যান্য যে প্রোডাক্ট অনেক দূরে পাঠানো হয় সেগুলোকে তাজা রেখে সংরক্ষণ করা যেতে পারে এই ফ্লেক আইস মেকার মেশিন ব্যাবহার করে। এই মেশিন ব্যাবহারে বিদ্যুৎ বিল তুলনামূলক কম আসে। রক্ষণাবেক্ষন করার জন্য বাড়তি কোনো ঝামেলা হয় না।

ফ্লেক আইস মেশিনে মেইনটেনেন্সের জন্য কি কি করতে হবে?
আমাদের এই ফ্লেক বরফ তৈরির মেশিনটিতে খুব কম খরচে মেইন্টেনেন্স করা হয়। তবে মেইনটেনেন্সের পুর্বেই অবশ্যই সকল বৈদ্যুতিক সংযোগ ছিন্ন করে নিবেন। নতুবা যেকোনো বড় দুর্ঘটনা ঘটে যাওয়ার সম্ভাবনা থাকতে পারে। পাশাপাশি ফিল্টারাইজড পানির সংযোগটি ও খুলে নিবেন।
১। বাহিরের পুরো অংশ ডিটারজেন্ট দিয়ে পরিষ্কার করতে পারেন, অতঃপর মুছে দিবেন।
২। পানির ফিল্টার নিয়মিত চেক করতে হবে। প্রতি ৪-৬ মাস পর পর ফিল্টার কার্তুজ পরিবর্তন করা উচিত।
৩। মাঝে মাঝে স্টোরেজ বিন পরিষ্কার পানি দিয়ে ধৌত করতে হবে।
৪। নরম ব্রাশ কিংবা ভ্যাকুয়াম ক্লিনার দিয়ে প্রতি ৩ সপ্তাহে একবার করে কন্ডেনসরের উপর-নিচ পরিষ্কার করতে হতে হবে। আর কন্ডেন্সর ফিল্টারটিকে ২ সপ্তাহ পর পর পরিষ্কার করা উচিত।
৫। নিরাপদ খাবারের জন্য পানির সংযোগ লাইন নিয়মিত পরিষ্কার করতে হবে।

কোন কোন জায়গায় ফ্লেক আইস ব্যাবহার করা হয়?
মুলত বিভিন্ন সুপারমার্কেট, হোটেল, রেস্টুরেন্টে মাছ, চিংড়ি সহ অন্যান্য সামদ্রিক খাবারকে তাজা রাখার জন্য ফ্লেক আইস ব্যাবহার করা হয়। ফ্লেক আইস ব্যাবহারের করার ফলে এইসব প্রোডাক্টের আকার, কালার কিংবা ঘ্রাণ সহ গুণগত মান বজায় থাকে। পাশাপাশি মেরিন ফিসারিজ, একুয়াটিক প্রোডাক্টস প্রোসেসিং, মিট এবং ডেইরি প্রোডাক্টস প্রোসেসিঙে ফ্লেক আইস ব্যাবহার করা হয়।


মেশিনের ওয়ারেন্টি কত বছরের?
আমাদের বাণিজ্যিক এই ফ্লেক আইস মেকার মেশিনে রয়েছে ১ বছরের ফ্রি সার্ভিস ওয়ারেন্টি । এই সময়ের মধ্যে মেশিনে কোনো সমস্যা দেখা দিলে আমাদের সার্ভিসিং টিম দ্রুত সময়ে অনলাইনে কিংবা অফলাইনে সমস্যা সমাধান করে দিবে। এক্ষেত্রে যদি কোনো পার্টস ক্রয় করা লাগে তবে তা আমাদের কোম্পানি খরচ বহন করবেনা, আপনাকে পার্টসের মূল্য পরিশোধ করতে হবে। ১ বছরের পর যদি মেশিনে সমস্যা দেখা দেয় তবে সেক্ষেত্রে সার্ভিসিং চার্ট অনুযায়ী পেমেন্ট করতে হবে

মেশিন কেনার জন্য এই লিঙ্কে ভিজিট করুনঃ https://nobarunbd.com/commercial-flake-ice-maker-machine-price-in-bangladesh

Mr. Mahin
+8801810004009
Whatsapp
nobarunbd@gmail.com

H#199 (1st Floor), R#01, New DOHS Mohakhali, Dhaka-1206, Bangladesh

Categories

সুপারশপের র‍্যাক

কমার্শিয়াল কিচেন ইকুইপমেন্ট

রেস্টুরেন্ট ইকুইপমেন্ট

কার পার্কিং ম্যানেজমেন্ট

ডিজিটাল গেট সিস্টেম

মেটাল ডিটেকটর সিস্টেম

রোড সেফটি প্রোডাক্টস

সুপারশপ ফ্রিজ

সুপারশপ ইকুইপমেন্ট

স্পেশাল প্রোডাক্টস

স্লটারহাউজ ইকুইপমেন্ট

কোল্ড স্টোরেজ সমাধান

Product Tags