ভালো মানের রাবার ট্রাফিক কোণ কেনো কিনবেন? কেনার আগে জেনে নিন

রাস্তায় চলার সময় মাঝে মাঝেই আমাদের চোখে পড়ে গোলাকার খাড়া এবং কালারফুল একটা জিনিশ। যা ট্রাফিক কন্ট্রোল করার জন্য, মাঝে মাঝে গাড়িগুলোকে লেন ভাগ করে দেবার জন্য এবং সুনিয়ন্ত্রিতভাবে ট্রাফিক কন্ট্রোল সিস্টেম পরিচালিত করার জন্য এই কোন ব্যবহার করা হয়ে থাকে। কোন মুলত প্লাস্টিক এবং রাবারের তৈরি হয়ে থাকে। আজকে আমরা আলোচনা করবো রাবার ট্রাফিক কোণ নিয়ে।

  • সিনথেটিক রাবারের তৈরিঃ আমাদের এই রাবার ট্রাফিক কোণ খুবই উন্নতমানের সিনথেটিক রাবার দ্বারা তৈরি করা হয়েছে। সকল প্রকার রাবারের মধ্যে এই রাবারটি খুবই ভাল এবং উন্নতমানের, যার ফলে কোণটি কোন রকম সমস্যা ছাড়াই ব্যবহার করা যায় বছরের পর বছর। এটি ওজনে কম হওয়ার কারণে সহজে এক স্থান থেকে অন্য স্থানে বহন এবং স্থাপন করা যায়।
  • ফেটে বা ভেঙে যাবে নাঃ রাবার ট্রাফিক কোণ এর একটি বিশেষ বৈশিষ্ট হল, এই কোনটি ভেঙে বা ফেটে যাবে না। এমনকি এই কোনের উপর দিয়ে যদি গাড়িও চলে যায় তাহলেও কোণের কিছুই হবে না। সহজ কথায় শুধুমাত্র এই কোণটি আগুনে পুড়ে নষ্ট হতে পারে, তাছাড়া নষ্ট হওয়ার সম্ভাবনা খুবই কম।
  • ব্যবহারের ক্ষেত্রঃ ট্রাফিক কোন সাধারণত গাড়ি পার্কিং এ এবং রাস্তায় ব্যবহার করা হয়। যেমন কোন রাস্তা বন্ধ করতে, রাস্তায় কোন কাজ চালু রাখার সুবিধার্থে, গাড়ির চলাচলের পথ পরিবর্তন করলে, কোন জায়গা বা রাস্তা ব্লক করে রাখতে এবং একটি রাস্তাকে ২ ভাগে বিভিক্ত করতে এই রাবারের ট্রাফিক কোণ ব্যবহার করা হয়ে থাকে। আর যে কোন গাড়ির পার্কিং এ এর অনেক ব্যবহার রয়েছে। যেমন গাড়ির লেন ডিভাইড করতে, বিশেষ পার্কিং ব্লক করতে, পার্কিং ঢোকার এবং বের হওয়ার রাস্তায় সহজে গাড়িকে পাস করাতে ইত্যাদি কাজের পার্কিং এ এই কোণ ব্যবহার করা হয়ে থাকে। তাছাড়া যে কোন রাস্তার বিপদের আগাম সতর্কতা এবং গাড়ি চলাচলে বাধা সৃষ্টি করতে রাবারের এই ট্রাফিক কোন ব্যবহার করা হয়ে থাকে।
  • রোদ বৃষ্টিতে নষ্ট হবে নাঃ রাবারের তৈরি এই বিশেষ ধরণের রাবার ট্রাফিক কোণ এমন ভাবে তৈরি করা হয়েছে যে, এটি রাস্তায় বা খোলা আকাশের নিচে ব্যবহার হবে এবং তাতে এই কোণের কোন রকম ক্ষতি হবে না। মানে এই কোনটি সম্পূর্ণ ওয়েদার প্রুফ।
  • রাতে দেখার জন্য রিফ্লেক্টরঃ রাতে গাড়ি চলাচলের সময় অনেক ক্ষেত্রে গাড়ির চালক অনেক ব্যারিয়ার বা বাধা বা কনস্ট্রাকশন কাজ দেখতে পায় না আলো স্বল্পতা এবং অনেক কারণে। এই সমস্যারও সমাধান হবে এই ট্রাফিক কোন দিয়ে। রাতে এই ট্রাফিক কোন যেন অল্প আলোতে খুব ভাল ভাবে দেখা যায় তার জন্য এই কোণে ব্যবহার করা হয়েছে বিশেষ ধরণের রিফ্লেক্টর। যা অনেক ক্ষেত্রে গাড়ি দুর্ঘটনা রোধ করতে সাহায্য করে থাকে।
  • আই ক্যাচি কালারঃ দূর থেকে পরিস্কারভাবে দেখার জন্য এই রাবারের ট্রাফিক কোণটি ট্রাফিক ওরেঞ্জ কালারের তৈরি করা হয়েছে, যা অনেক দূর থেকে পরিষ্কার দেখা যায়। আর রাতে দেখার জন্যত রিফেক্টর আছেই।
  • মেইড ইনঃ রাবারের তৈরি এই বিশেষ রাবার ট্রাফিক কোণ তৈরি করা হয়েছে চীন দেশের একটি স্বনামধন্য ফ্যাক্টরিতে এবং আমরা বাংলাদেশে এই পন্যটি ইমপোর্ট করে বিক্রি করে থাকি।

প্রোডাক্ট এর সকল প্রকার স্পেসেফিকেশন

•কালার•কমলা
•রিফ্লেক্টর•হ্যাঁ
•সাইজ•বিভিন্ন
•ওজন•১+ কেজি
•ম্যাটেরিয়াল •সিনথেটিক রাবার
•ভাঙবে বা ফাটবে?•না
•মেইড ইন• চীন
•কোয়ালিটি•হাই

প্রোডাক্ট সম্পর্কে ভিডিও দেখে নিতে পারেনঃ

চলুন জেনে নেই রাবার ট্রাফিক কোণ সম্পর্কে প্রচলিত কিছু প্রশ্ন ও উত্তরঃ

প্রশ্নঃ রাবার ট্রাফিক কোণ কি?

উত্তরঃ যে বস্তু রাস্তা বা ফুটপাথ ব্যবহার করা হয় এবং যায় মাধ্যমে স্থায়ী বা অস্থায়ী ভাবে গাড়ির চলাচলের দিক পরিবর্তন সহ নিরাপত্তাজনীত কাজ করা হয় তাকে ট্রাফিক কোন বলে। এবং এই ট্রাফিক কোনটি রাবারের তৈরি বলে আমরা ইহাকে রাবার ট্রাফিক কোণ বলে থাকি। এই কোণটি রাবারের হওয়ার কারণে অনেক সুবিধা পাওয়া যায়। ট্রাফিক কোণ সর্বপ্রথম ব্যবহার করা হয় ১৯৫৮ সালে ইউনাইটেড কিংডমে।

———————————————————————————–

প্রশ্নঃ ট্রাফিক কোন কেন ব্যবহার করা হয়?

উত্তরঃ ট্রাফিক কোণ ইনডোর এবং আউটডোরে বিভিন্ন কারণে ব্যবহার করা হয়ে থাকে। পার্কিং এ গাড়ির জায়গা ব্লক করা, গাড়ি চলাচলের রাস্তা বুঝাতে, চলাচলের রাস্তা ভাগ করার ক্ষেত্রে, রাস্তার দিক নির্দেশনা বুঝাতে, গাড়ি চলাচলে সতর্কতা বুঝাতে,  র‍্যাম্পের ইন এবং আউট রোড আলাদা করা সহ বিভিন্ন রকম কাজের রাবার ট্রাফিক কোণ ব্যবহার করা হয়ে থাকে।

———————————————————————————–

প্রশ্নঃ ট্রাফিক কোণ কি ধরণের ম্যাটারিয়াল দিয়ে তৈরি করা হয়?

উত্তরঃ ট্রাফিক কোণ বিভিন্ন ধরণের ম্যাটারিয়াল দিয়ে তৈরি করা হয়ে থাকে। আমাদের এই রাবার ট্রাফিক কোণ বিশেষ ধরনের সিনথেটিক রাবার দ্বারা খুবই উন্নত প্রযুক্তিতে তৈরি করা হয়েছে। রাবারকে উন্নত প্রযুক্তিতে রিসাইকেল করে এর থেকে ভাল মানের সিনথেটিক রাবার তৈরি করা হয় এবং তা দিয়েই ট্রাফিক কোণ তৈরি করা হয়।

———————————————————————————–

প্রশ্নঃ রাবার ট্রাফিক কোণের বৈশিষ্ট কি কি?

উত্তরঃ রাবারের তৈরি এই বিশেষ ট্রাফিক কোণের প্রধান বিশিষ্ট হল এই কোণটি ভাঙ্গে না বা ফেটে যায় না। এটি এতটাই নমনীয় করে তৈরি করা হয়েছে যে, এটা ভাঙবে না। এটি মুচরিয়ে একটি ফুটবলের মত তৈরি করে ফেললেও ছেড়ে দেওয়ার সাথে সাথেই এটি আবার একটি কোণ হয়ে যাবে। শুধুমাত্র আগুনে পুড়ে ফেলা ছাড়া এটিকে নষ্ট করা খুব কষ্টকর। এই ট্রাফিক কোণ রাতের বেলা রিফ্লেক্টরের মাধ্যমে আলোর প্রতিফলন ছড়ায়। এই কোণের ওজন কম হওয়ার জন্য এক জায়গা থেকে অন্য যায়গায় বহন করা এবং স্থাপন করা যায় খুব সহজেই। এই ট্রাফিক কোণটি অনেক দূর থেকে পরিস্কারভাবে দেখার জন্য এটিকে ট্রাফিক ওরেঞ্জ কালারের তৈরি করা হয়েছে, মানে এটি আই ক্যাচি কালারের তৈরি। আরো একটি বড় সুবিধা হল এই কোণটি সম্পূর্ণ ওয়েদার প্রুফ, যা রোদ বৃষ্টি বা ঝরে নষ্ট হওয়ার কোন সম্ভাবনা নেই।

———————————————————————————–

প্রশ্নঃ এই ধরণের ট্রাফিক কোণ কোথায় তৈরি করা হয়?

উত্তরঃ উন্নত কাঁচামাল এবং উন্নত প্রযুক্তি ব্যবহার করে এই ধরণের রাবার ট্রাফিক কোণ চীন দেশে তৈরি করা হয়ে থাকে, যা বাংলাদেশ সহ অনেক দেশেই তৈরি করা হয় না। এই রাবার ট্রাফিক কোণ চীন থেকে আমরা চীন থেকে আমদানি করে বাংলাদেশে বিক্রি করি।

———————————————————————————–

প্রশ্নঃ রাবার ট্রাফিক কোণ এর দাম কেমন?

উত্তরঃ আমরা যেহেতু এই প্রোডাক্ট দেশের বাইরে থেকে ইমপোর্ট করে নিয়ে আসি তাই বিশ্ববাজারের দাম, ভ্যাট, ট্যাক্স ইত্যাদি খরচের উপর ভিত্তি করে আমাদের একেক সময় একেক রকম দাম পড়ে। তাই বর্তমান দাম জানতে নিচের দেওয়া মোবাইল নাম্বারে দয়া করে আমাদেরকে কল করুন।

আমাদের প্রতিনিধিগণ আপনাকে লেটেস্ট প্রাইস দিয়ে দিবে।

———————————————————————————–

প্রশ্নঃ ঢাকা এবং ঢাকার বাইরে এই প্রোডাক্ট কিভাবে পাবো?

উত্তরঃ আপনার লোকেশন যদি ঢাকা হয়ে থাকে তবে আপনি সরাসরি আমাদের অফিসের ঠিকানায় চলে আসতে পারেন। অফিসে এসে রাবার ট্রাফিক কোণ সামনাসামনি দেখে, প্রোডাক্ট চেক করে সব কিছু ঠিক থাকলে ক্যাশ টাকা দিয়ে প্রোডাক্ট কিনে নিয়ে যেতে পারেন। আর আপনি যদি ঢাকার বাহিরে অবস্থান করেন এবং আমাদের অফিসে আসা যদি আপনার সম্ভব না হয় তাহলে, আপনি চাইলে কুরিয়ারের কন্ডিশনাল পেমেন্টের মাধ্যমেও আমাদের প্রোডাক্ট ডেলিভারি নিতে পারেন। সেক্ষেত্রে আপনার নাম, মোবাইল নাম্বার এবং ঠিকানার সাথে আমাদেরকে ১০০০ টাকা বিকাশে বা ব্যাংকে এ্যাডভান্স করতে হবে। এ্যাডভান্স পেমেন্ট পাওয়ার পর আমরা প্রোডাক্ট কুরিয়ারে বুকিং করে দিব, তার পরবর্তী ১-২ দিনের মধ্যে আপনি কুরিয়ারে মাল পেয়ে যাবেন। কুরিয়ারের মাধ্যমে প্রোডাক্ট ডেলিভারি নিলে কুরিয়ারের সকল চার্জ কাস্টমারকে বহন করতে হবে।

———————————————————————————–

প্রশ্নঃ এই রাবার ট্রাফিক কোণ কেনার জন্য পেমেন্টের সিস্টেম কি?

উত্তরঃ আমাদের অফিসে এসে রাবার ট্রাফিক কোণ কিনে নিয়ে গেলে প্রোডাক্টের সম্পূর্ণ টাকা ক্যাশ পেমেন্ট করতে হবে। আর যদি কুরিয়ারের কন্ডিশনাল পেমেন্টে প্রোডাক্ট ডেলিভারি নিতে চান সেক্ষেত্রে আমাদেরকে ১০০০ টাকা বিকাশে বা ব্যাংকে এ্যাডভান্স করতে হবে এবং বাকি টাকা মাল ডেলিভারি নেওয়ার সময় কুরিয়ার পেমেন্ট করতে হবে।

———————————————————————————–

প্রশ্নঃ রাবার ট্রাফিক কোণ ঢাকার বাইরেও দিতে গেলে কুরিয়ার খরচ আনুমানিক কেমন হবে?  

উত্তরঃ এটা নির্ভর করে প্রোডাক্টের সাইজের উপর, মানে কার্টোন যত বড় হবে তার উপর নির্ভর করবে কুরিয়ারের চার্জ কত হবে। সাধারনত প্রোডাক্টের সাইজ অনুযায়ী ২০০ টাকা থেকে শুরু করে ২০০০ টাকা পর্যন্ত কুরিয়ার খরচ হতে পারে।

———————————————————————————–

প্রশ্নঃ ঢাকায় বা বাংলাদেশে এই রাবার ট্রাফিক কোণ কে বা কারা বিক্রি করে? কিভাবে তাদের সাথে এই প্রোডাক্ট কেনার জন্য যোগাযোগ করতে পারি? কোন প্রোডাক্ট লিঙ্ক দিতে পারবেন কি?

উত্তরঃ এই প্রোডাক্ট নবারুন ইন্টারন্যাশনাল বিক্রি করে থাকে।

রাবার ট্রাফিক কোণ ক্রয় করার জন্য নবারুন ইন্টারন্যাশনালের সাথে যোগাযোগ করার মোবাইল নাম্বারঃ ০১৭১১ ৯৯৮৬২৬

ইমেইলঃ sales@nobarunbd.com

প্রোডাক্ট লিংকঃ https://www.nobarunbd.com/pvc-rubber-traffic-safety-cone-price-in-bangladesh

[yuzo_related]