ইলেক্ট্রিক পপকর্ণ মেকারঃ খুটিনাটি সব জেনে নিন এই পপকর্ণ তৈরির মেশিন সম্পর্কে

Category:
  • ক্যাপাসিটিঃ কমার্শিয়াল পপকর্ণ মেশিন সাধারনত একটু বেশি ক্যাপাসিটির হয়ে থাকে। আমাদের এই কমার্শিয়াল পপকর্ণ মেকার মেশিন দিয়ে প্রতি ঘন্টায় ১০ কেজি ভুট্টার পপকর্ণ তৈরি করা যাবে। মানে যদি ১০ ঘন্টা এই মেশিনটি চালানো হয় তাহলে প্রায় ১০০ কেজি ভুট্টা ভাজা যাবে।
  • পপকর্ণের ধরণঃ এই পপকর্ণ মেকার মেশিন দিয়ে কয়েক ধরণের পপকর্ণ তৈরি করা যায়, যেমন সাধারন পপকর্ন, ক্যারামেল পপকর্ণ, চিজ পপকর্ণ ইত্যাদি। এই মেশিনের তৈরি পপকর্ণ পুড়ে যাওয়ার কোন সম্ভাবনা থাকে না।
  • মেশিনের ধরনঃ আমাদের এই পপকর্ণ মেকার মেশিন দেখতে একটি ঘরের মত। আসলে পপকর্ণ তৈরি করে পপকর্ণ সংরক্ষণ করার জন্য এই ঘর ব্যবহার করা হয়। ঘরের ঠিক উপরে অংশে পপকর্ণ তৈরি করার জন্য একটু ফ্রায়ার রয়েছে, সেই ফ্রায়ারের মাধ্যমেই পপকর্ণ ভাজা হয়। মেশিনটি টেবিলের উপর রেখে ব্যবহার করে হয় বলে এই মেশিনকে টেবিল টাইপ মেশিন বলা হয়। আকারে বেশি বড় না হওয়ায় এই মেশিনটি সহজেই এক স্থান থেকে অন্য স্থানে স্থানান্তর করা যায়।
  • কি পাওয়ার দিয়ে চলে এই মেশিনঃ ইলেকট্রিক পাওয়ার দিয়ে এই মেশিন চালানো হয়। এই মেশিনে একটি ইলেকট্রিক হিটার রয়েছে যার মাধ্যামে পপকর্ণ ভাজা হয়। এই হিটারের পাওয়ার মাত্র ১৩০০ ওয়াট, যা অন্যন্য হিটারের ওয়াট থেকে অনেক কম ওয়াটের। এই মেশিনটি সিঙ্গেল ফেজের ২২০ ভোল্টের মাধ্যমে চলে। মেশিনটি চালানোর জন্য হিটার, মটর ও লাইটের জন্য আলাদা আলাদা সুইচ রয়েছে যা ব্যবহার করা খুবই সহজ।
  • মেশিনের কোয়ালিটিঃ এই মেশিনের কোয়ালিটি নিঃসন্দেহে অনেক ভাল মানের। ইলেকট্রিক পপকর্ণ মেশিনে খুব ভাল মানের হিটার ব্যবহার করা হয়েছে এবং ঘরের জন্য খুব ভাল মানের গ্লাস এবং দরজা ব্যবহার করা হয়েছে।
  • ডিজাইনঃ ডিজাইনের দিক থেকে এই মেশিন অসাধারন সুন্দর। এই মেশিনের ডিজাইনের জন্য এই মেশিনের অনেক সুনাম রয়েছে।
  • মেইড ইনঃ এই পপকর্ণ মেশিনটি চীনের একটি স্বনামধন্য ফ্যাক্টরিতে তৈরি করা হয়েছে এবং আমরা চীন থেকে আমদানি করে থাকি।
  • ওয়ারেন্টিঃ এই মেশিনের সাথে আমরা ১ বছরের সার্ভিস ওয়ারেন্টি দিয়ে থাকি।

 

স্পেকেফিকেশনঃ

• উৎপাদন ক্যাপাসিটি • ১০ কেজি প্রতি ঘন্টা
• মেশিন টাইপ • টেবিল টপ
• পাওয়ার • ইলেকট্রিক
• হিটেড লাইট • হ্যাঁ
• ওয়াট • ১৩০০ ওয়াট
• ভোল্টেজ • ২২০ ভোল্ট
• টার্ন সুইচ • হ্যাঁ
• হিটার সুইচ • হ্যাঁ
• লাইট সুইচ • হ্যাঁ
• সেফটি অপশন • হ্যাঁ
• মেশিনের রঙ • লাল / গোলাপি
• দরজা • সুইং টাইপ
• প্যান টাইপ • নন স্টিকি
• মেশিনের সাইজ • ধৈর্ঘ্যঃ ২১ ইঞ্চি, প্রস্থঃ ১৬ ইঞ্চি এবং উচ্চতাঃ ২৬ ইঞ্চি
• প্যানের সাইজ • ৮ ইঞ্চি ডায়ামিটার

প্রোডাক্ট সম্পর্কে ভিডিও দেখে নিতে পারেনঃ

প্রোডাক্ট সম্পর্কে কিছু পরিচিত প্রশ্ন ও তার উত্তরঃ

প্রশ্নঃ ইলেকট্রিক পপকর্ণ মেশিন কি?

উত্তরঃ যে মেশিনের মাধ্যমে ভুট্টা ভাজা হয় বা কর্ণ ভাজা হয় তাকে পপকর্ণ মেকার মেশিন বলে। আমাদের এই মেশিন ইলেকট্রিক পাওয়ারের সাহায্যে চলে বলে এই মেশিনকে ইলেকট্রিক পপকর্ণ মেশিন বলে।

———————————————————————————–

প্রশ্নঃ পপকর্ণ মেশিনের কি কি সুবিধা রয়েছে?

উত্তরঃ কোন ধরণের ঝামেলা ছাড়াই খুব সহজে কোন ধরণের পোড়ার সম্ভাবনা ছাড়া পপকর্ণ তৈরি করাই এই মেশিনের সব থেকে বড় সুবিধা। এই মেশিনের মাধ্যমে কয়েক ধরণের পপকর্ণ তৈরি করা যায়। তাছাড়া এই মেশিনেই পপকর্ণ ভাজার পর তা সংরক্ষণ করা যায় খুব সহজেই এবং এই মেশিনটি দেখতে অত্যন্ত সুন্দর হওয়ার কারনে যে কোন পরিবেশে এটি ব্যবহার করা যায়।

———————————————————————————–

প্রশ্নঃ এই মেশিনে ভাজা পপকর্ণ কি স্বাস্থ্যসম্মত?

উত্তরঃ জ্বি, এই মেশিনের ভাজা পপকর্ণ ১০০% স্বাস্থ্যসম্মত। এই মেশিনের হিটেরের উপর নন স্টিকি প্যান ব্যবহার করা হয়। আপনি নিঃসন্দেহে এই মেশিনের ভাজা মচমচে পপকর্ণ খেতে পারেন।

———————————————————————————–

প্রশ্নঃ এই মেশিনের পপকর্ণ ভেজে কতক্ষন সংরক্ষণ করা যায়?

উত্তরঃ এই মেশিনের ঘরের মধ্যে যে কোন ধরনের পপকর্ণ সংরক্ষণ করা যায়। আপনি চাইলে এই ঘরের মধ্যের হিটেড লাইট জ্বিলিয়ে ২৪ ঘন্টা পর্যন্ত মচমচে অবস্থায় পপকর্ণ সংরক্ষণ করতে পাড়বেন খুব সহজেই।

———————————————————————————–

প্রশ্নঃ এই মেশিন চালালে বিদ্যুৎ খরচ কেমন হবে?

উত্তরঃ এই মেশিন দিয়ে পপকর্ণ ভাজার সময় এটি মাত্র ১৩০০ ওয়াট বিদ্যুৎ খরচ করে থাকে যা অন্যন্য হিটার থেকে অনেক কম। এই মেশিন দিয়ে ১০ ঘন্টা (প্রায় ১০০ কেজি) পপকর্ণ ভাজলে আনুমানিক কারেন্ট বিল ১০০টাকা থেকে ১১০ টাকা আসতে পারে। যা একটি কমার্শিয়াল পপকর্ণ তৈরির মেশিনের হিসেবে অনেক কম।

———————————————————————————–

প্রশ্নঃ কোথায় কোথায় ব্যবহার করা যাবে এই মেশিন?

উত্তরঃ ফুড কোর্ট, ফাস্ট ফুড, রেস্টুরেন্ট, স্ট্রিট ফুড, কেন্টিন, রিসোর্টসহ অন্যন্য সকল খাবার সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠানে এই মেশিন ব্যবহার করতে পারেন।

———————————————————————————–

প্রশ্নঃ এই পপকর্ণ মেশিনটি আপনি কেন কিনবেন?

উত্তরঃ বিভিন্ন ধরণের পপকর্ণ কোন ধরণের পোড়ার ঝামেলা ছাড়া অনেক কম খরচে তৈরি করা এবং একই সাথে মেশিনের ঘরের মধ্যে সংরক্ষণ করার জন্য এই উচ্চ কোয়ালিটির মেশিনটি আপনি কিনবেন। আরো একটি কারন হল এই মেশিনের সহজ ব্যবহার, এই মেশিনটি ব্যবহার করা এতটাই সহজ যে, যে কেউ একবার এই মেশিনের ব্যবহার দেখলে পরবর্তীতে যে নিজে নিজেই এই মেশিন ব্যবহার করতে পাড়বেন। এই মেশিনে সংরক্ষণ করা পপকর্ণ খুব মচমচে থাকে।

———————————————————————————–

প্রশ্নঃ এই প্রোডাক্ট এর দাম কেমন?

উত্তরঃ আমরা যেহেতু এই প্রোডাক্ট দেশের বাইরে থেকে ইমপোর্ট করে নিয়ে আসি তাই বিশ্ববাজারের দাম, ভ্যাট, ট্যাক্স ইত্যাদি খরচের উপর ভিত্তি করে আমাদের একেক সময় একেক রকম দাম পড়ে। তাই বর্তমান দাম জানতে নিচের দেওয়া মোবাইল নাম্বারে দয়া করে আমাদেরকে কল করুন।

আমাদের প্রতিনিধিগণ আপনাকে লেটেস্ট প্রাইস দিয়ে দিবে।

———————————————————————————–

প্রশ্নঃ ঢাকা এবং ঢাকার বাইরে এই প্রোডাক্ট কিভাবে পাবো?

উত্তরঃ আপনার লোকেশন যদি ঢাকা হয়ে থাকে তবে আপনি সরাসরি আমাদের অফিসের ঠিকানায় চলে আসতে পারেন। অফিসে এসে প্রোডাক্ট সামনাসামনি দেখে, প্রোডাক্ট চেক করে সব কিছু ঠিক থাকলে ক্যাশ টাকা দিয়ে প্রোডাক্ট কিনে নিয়ে যেতে পারেন। আর আপনি যদি ঢাকার বাহিরে অবস্থান করেন এবং আমাদের অফিসে আসা যদি আপনার সম্ভব না হয় তাহলে, আপনি চাইলে কুরিয়ারের কন্ডিশনাল পেমেন্টের মাধ্যমেও আমাদের প্রোডাক্ট ডেলিভারি নিতে পারেন। সেক্ষেত্রে আপনার নাম, মোবাইল নাম্বার এবং ঠিকানার সাথে আমাদেরকে ২০০০ টাকা বিকাশে বা ব্যাংকে এ্যাডভান্স করতে হবে। এ্যাডভান্স পেমেন্ট পাওয়ার পর আমরা প্রোডাক্ট কুরিয়ারে বুকিং করে দিব, তার পরবর্তী ১-২ দিনের মধ্যে আপনি কুরিয়ারে মাল পেয়ে যাবেন। কুরিয়ারের মাধ্যমে প্রোডাক্ট ডেলিভারি নিলে কুরিয়ারের সকল চার্জ কাস্টমারকে বহন করতে হবে।

———————————————————————————–

প্রশ্নঃ এই প্রোডাক্ট কেনার জন্য পেমেন্টের সিস্টেম কি?  

উত্তরঃ আমাদের অফিসে এসে প্রোডাক্ট কিনে নিয়ে গেলে প্রোডাক্টের সম্পূর্ণ টাকা ক্যাশ পেমেন্ট করতে হবে। আর যদি কুরিয়ারের কন্ডিশনাল পেমেন্টে প্রোডাক্ট ডেলিভারি নিতে চান সেক্ষেত্রে আমাদেরকে ২০০০ টাকা বিকাশে বা ব্যাংকে এ্যাডভান্স করতে হবে এবং বাকি টাকা মাল ডেলিভারি নেওয়ার সময় কুরিয়ার পেমেন্ট করতে হবে।

———————————————————————————–

প্রশ্নঃ কুরিয়ার খরচ আনুমানিক কেমন হবে?  

উত্তরঃ এটা নির্ভর করে প্রোডাক্টের সাইজের উপর, মানে কার্টোন যত বড় হবে তার উপর নির্ভর করবে কুরিয়ারের চার্জ কত হবে। সাধারনত প্রোডাক্টের সাইজ অনুযায়ী ২০০ টাকা থেকে শুরু করে ২০০০ টাকা পর্যন্ত কুরিয়ার খরচ হতে পারে।

———————————————————————————–

প্রশ্নঃ বিক্রির পর সাপোর্ট পাবো কিভাবে?

উত্তরঃ আমাদের সার্ভিস বা সাপোর্টের নাম্বারে কল দিয়ে আপনার প্রোডাক্টের সমস্যার কথা জানালেই আমরা আপনাকে সাপোর্ট দিব। আমরা সাধারণত আমাদের প্রোডাক্টের ১ বছরের ফ্রি সার্ভিস ওয়ারেন্টি দিয়ে থাকি। এই সময়ের মধ্যে প্রোডাক্টের যে কোন ধরণের সমস্যা হলে আমরা বিনা মূল্যে সার্ভিস করে দিব এবং এর পরে হলে সার্ভিস চার্জ দিতে হবে। প্রোডাক্ট সার্ভিস করতে যদি কোন পার্টস প্রয়োজন হয় তাহলে, কাস্টমার তার মূল্যে পরিশোধ করবে।

———————————————————————————–

প্রশ্নঃ ঢাকায় বা বাংলাদেশে এই প্রোডাক্ট কে বা কারা বিক্রি করে? কিভাবে তাদের সাথে এই প্রোডাক্ট কেনার জন্য যোগাযোগ করতে পারি? কোন প্রোডাক্ট লিঙ্ক দিতে পারবেন কি?

উত্তরঃ এই প্রোডাক্ট নবারুন ইন্টারন্যাশনাল বিক্রি করে থাকে।

কমার্শিয়াল পপকর্ণ মেকার মেশিন ক্রয় করার জন্য নবারুন ইন্টারন্যাশনালের সাথে যোগাযোগ করার মোবাইল নাম্বারঃ ০১৭১১ ৯৯৮৬২৬

ইমেইলঃ sales@nobarunbd.com

প্রোডাক্ট লিংকঃ https://www.nobarunbd.com/commercial-popcorn-maker-machine-in-bangladesh

 

Tag: , , , , , , , , , , , , , , , , , , , , , , ,
[yuzo_related]
error: Content is protected !!